The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

ট্রাম লাইনে গাড়ি পার্ক করে উধাও চালক!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ আমাদের দেশে এমন ঘটনা ঘটলে বোঝা যেতো অশিক্ষিত ও অজ্ঞ চালক ফুটপথের দোকানে চা খেতে কিংবা রাস্তার ধারে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে গেছেন। কিন্তু বিদেশ-বিভুইয়ে এমন ঘটনা! ট্রাম লাইনে গাড়ি পার্ক করে উধাও চালক। ঘটনাটি ঘটেছে ইংল্যান্ডের নটিংহ্যামে।

car driver & tram lines-3

আামদের দেশে শিক্ষার বালাই থাকে না চালকদের মধ্যে। ছোট-বড় কোনো ভেদাভেদ থাকে না তাদের মধ্যে। গাড়ির হেলপারি করতে পারলে আর চালকের সঙ্গে সুসম্পর্ক থাকলেই হলো ব্যাস বনে যান চালক। কারণ ড্রাইভিং লাইসেন্স নিতেও খুব একটা বেগ পেতে হয় না। তাই অশিক্ষিত বা অজ্ঞ ব্যক্তিও বনে যান চালক। কিন্তু বিদেশ বিভূইয়ে এমন ঘটনা। তাও আবার ট্রাম লাইনে কারটি রেখে কাজ সারা!

car driver & tram lines-2

এমনই একটি ঘটনা ঘটেছে ইংল্যান্ডের নটিংহ্যামে। ট্রাম লাইনের ওপর গাড়ি রেখে এক মহিলা চালক গিয়েছিলেন কফি শপে। এদিকেতো, সেই লাইনে ট্রাম এসে হাজির। গাড়ি পার্ক করা আছে বলে ট্রামও শেষ পর্যন্ত দাঁড়িয়ে গেলো। ট্রামের চালক বার বার হর্ন দিচ্ছেন। কিন্তু কে শোনে কার কথা। তাছাড়া গাড়িতে কেও থাকলেতো শুনবে। এদিকে ট্রাম যাত্রীরা অস্থির হয়ে উঠেছেন। এভাবেই পার হয়ে গেলো অন্তত মিনিট ১৫। তবুও কোনও সাড়া-শব্দ নেই কারও। এরপর বাধ্য হয়ে ট্রামের যাত্রীরা নামলেন রাস্তায়। দেখলেন গাড়িতে কেও নেই। এখন কি করা। শুরু হলো ‘জনজাগরণ’।

car driver & tram lines

সম্পূর্ণ লক করে রাখা অবস্থায় এতো ভারি একটা গাড়িকে শেষ পর্যন্ত ঠেলে সরিয়ে দিলেন ট্রামের যাত্রীরাই। তত্‍ক্ষণে এসে পড়েছেন সেই গাড়ির চারক মালকিনও। তিনি তো দেখে একেবারে মাথা হেঁট করে দাঁড়িয়ে রইলেন। ট্রাফিক পুলিশকে অনেক টাকার জরিমানাও দিতে হলো মধ্যবয়স্কা এই মহিলাকে। ট্রাম যাত্রীদের এহেন দারুণ কাজে টুইটারে বেশ সাড়া পড়ে গেছে। নানা মুখরোচক গল্প চলে আসছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে। তথ্যসূত্র: ডেইলিমেল ইউকে

Loading...