ব্যতিক্রমি চলচ্চিত্র ‘প্রাইওরিটি’ কাহিনী

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ব্যতিক্রমি এক চলচ্চিত্র ‘প্রাইওরিটি’ কাহিনী রয়েছে আজকের বিনোদন বিভাগে। অসামান্য এক ভালবাসার কাহিনী নিয়ে নির্মিত হয়েছে ‘প্রাইওরিটি’ চলচ্চিত্রটি।

Exceptional film praioriti

স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘প্রাইওরিটি’ নির্মাণ করেছেন তরুণ দুই নির্মাতা মোস্তফা কামাল সোহেল ও চঞ্চল। চিত্রনাট্য লিখেছেন নাসিফ। ‘প্রাইওরিটি’র প্রধান দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন যথাক্রমে আফফান মিতুল ও সাইমুন। রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন স্থানে ‘প্রাইওরিটি’র শুটিং করা হয়েছে। চিত্রগ্রাহক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন তানভীর আহমেদ। ‘প্রাইওরিটি’র অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন জামিউল ইসলাম মারুফ, ফারিয়া ফারিয়েল, হিমেল খন্দকার, লুসেন্ট হাসানাত, অরণ্য হুমায়ূন প্রমুখ।

এর কাহিনীতে বলা হয়েছে, মিতুল ও জেসি একে অন্যকে ভালোবাসে। ভালোবাসা দিবসে প্রেমিকাকে দামি একটি মোবাইল ফোন উপহার দেওয়ার জন্য অনেক কষ্ট করে টাকা জোগাড় করে মিতুল। তার অসুস্থ মা চিকিৎসার জন্য ছেলের কাছে টাকা চাইলেও মাকে অবহেলা করে মিতুল। মায়ের চিকিৎসার ব্যবস্থা না করে প্রেমিকা জেসিকে দামি মোবাইল ফোন কিনে দেয় সে। কাকতালীয়ভাবে ভালোবাসা দিবসেই মৃত্যু হয় মিতুলের মা’র। মাকে হারিয়ে একরকম বাকরুদ্ধ হয়ে পড়ে মিতুল। অনুশোচনায় কাতর হয়ে পড়ে সে। এমন এক কাহিনী নিয়েই এগিয়ে গেছে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘প্রাইওরিটি’র কাহিনী।

Advertisements
Loading...