গবেষণা প্রতিবেদনে আশংকা: বাংলাদেশ-ভারত-চীন বন্যা ঝুঁকিতে!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ জলবায়ু পরিবর্তনসহ নানা কারণে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি নিম্নসারিতে থাকায় বাংলাদেশ-ভারত-চীন প্রবল বন্যা ঝুঁকিতে রয়েছে বলে আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমের খবরে আশংকা প্রকাশ করা হয়েছে।

Bangladesh-India-China flood risk

একদিকে জলবায়ু পরিবর্তন ও এর বিরুপ প্রভাব, অপরদিকে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি নিম্নসারিতে থাকায় প্রবল বন্যা ঝুঁকিতে রয়েছে বাংলাদেশ, ভারত ও চীন। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ওয়ার্ল্ড রিসোর্সেস ইনস্টিটিউট (ডব্লিউআরআই) এবং নেদারল্যান্ডের বিশেষজ্ঞদের এক গবেষণা শেষে এ তথ্য উঠে এসেছে।

পাকিস্তানের একটি প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত গবেষণা প্রতিবেদনকে উদ্ধৃত করে এক খবরে বলা হয়, বছরে সাধারণত সারা বিশ্বে দুই কোটির মতো মানুষ বন্যাকবলিত হয়ে থাকে। রিপোর্টে বলা হয়েছে, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ২০৩০ সাল নাগাদ এই সংখ্যা বেড়ে সাড়ে ৫ কোটিতে গিয়ে দাঁড়াবে। এতে বলা হয়, এই সংখ্যার ৮০ শতাংশই বাংলাদেশ, ভারত, চীন, ভিয়েতনাম ও পাকিস্তানের মানুষ। শুধুমাত্র ভারতেই ৫০ লাখ মানুষ প্রবল বন্যা ঝুঁকিতে রয়েছে বলে রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়।

ওই গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে, উন্নত দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি বন্যা ঝুঁকিতে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের জনগণ। ২০৩০ সাল নাগাদ দেশটির প্রায় ২ লাখ মানুষ গড়ে প্রতিবছর বন্যা ভোগান্তিতে পড়বে। ১৬০টি দেশ নিয়ে ঝুঁকির ভিত্তিতে প্রস্তুত করা ওই প্রতিবেদনের তালিকায় ভারতকে সর্বাগ্রে, এরপর বাংলাদেশ ও তৃতীয় স্থানে রাখা হয়েছে চীনকে। ওই তালিকার ১৮ নম্বরে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

উল্লেখ্য, সারাবিশ্বে প্রতিবছর বন্যার কারণে আর্থিক ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ৯৬ বিলিয়ন ডলার। শুধুমাত্র ভারতেই এই ক্ষতি হয় ১৪ বিলিয়ন ডলার। বাংলাদেশে ক্ষতির পরিমাণ প্রায় সাড়ে ৫ বিলিয়ন ডলার।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...