১৪ ঘণ্টা ডুবে থাকার পরও এক শিশুকে জীবিত উদ্ধার!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ দীর্ঘ ১৪ ঘণ্টা ডুবে থাকার পরও এক শিশুকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রের উতাহ অঙ্গরাজ্যে।

14 hours & baby

দীর্ঘ ১৪ ঘণ্টা ডুবে থাকার পরও এক শিশুকে জীবিত উদ্ধার করার এমন ঘটনার পর অনেকেই বলেছেন, ‘রাখে আল্লাহ মারে কে’। সৃষ্টিকর্তা ইচ্ছে করলে সবকিছুই করতে পারেন সেই প্রমাণ মিললো। যুক্তরাষ্ট্রের উতাহ অঙ্গরাজ্যে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি প্রাইভেট কার উতাহ’র একটি নদীতে পড়ে ডুবে যায় এক শিশু। ওই শিশুটি ডুবে যাওয়ার ১৪ ঘণ্টারও বেশি সময় পর ওই প্রাইভেট কার থেকেই ১৮ মাস বয়সী এক কন্যাশিশুকে জীবিত উদ্ধার করা হয়।

ঘটনাটি ঘটে ৭ মার্চ বিকেলে। এ ঘটনায় উতাহজুড়ে এক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। শিশুটিকে উদ্ধার করে রাজ্যের রাজধানী সল্ট লেক সিটির একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

জানা যায়, ওইদিন বিকেলে নদীতে ডুবন্ত ওই প্রাইভেটকারটি দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেন এক জেলে। খবর পেয়ে ৩ পুলিশ কর্মকর্তা ও ৪ জন দমকলকর্মী এসে শিশুটিকে উদ্ধার করেন। উদ্ধারের পর দেখা যায় শিশুটি তখনও জীবিত রয়েছেন। ওই প্রাইভেটকারের চালকের আসনে বেল্ট বাঁধা অবস্থায় ২৫ বছর বয়সী এক নারীর লাশও উদ্ধার করা হয়েছে। লিন গ্রোয়েসবেক নাম্নী স্প্রিংভিলে শহরের ওই নারী শিশুটির মা বলেই ধারণা করছে পুলিশ।

তদন্তকর্মকর্তারা মনে করছেন যে, আগের দিন৬ মার্চ আনুমানিক রাত সাড়ে ১০টার দিকে সড়কে সিমেন্টে একটি পিলারের সঙ্গে ধাক্কা লাগার পর স্প্যানিশ ফর্ক নদীতে পড়ে যায় ওই কারটি। ওই প্রাইভেটকারটি মা-মেয়েকে বহন করছিল। তবে ওই প্রাইভেটকারে আর কেও ছিল কি না পুলিশ তা তদন্ত করে দেখছে।

Advertisements
Loading...