বিশ্বে পানির যোগান ৪০% কমবে ২০৩০ সাল নাগাদ!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমের একটি খবর বিশ্ববাসীকে ভাবিয়ে তুলেছে। আর তা হলো বিশ্বে পানির যোগান ৪০% কমবে ২০৩০ সাল নাগাদ!

the water supply in 2030

আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমের একটি খবর বিশ্ববাসীকে ভাবিয়ে তুলেছে। আর তা হলো বিশ্বে পানির যোগান ৪০% কমবে ২০৩০ সাল নাগাদ। গবেষকরা বলেছেন, বর্তমানে যে হারে পানির ব্যবহার বাড়ছে সেই হার বজায় থাকলে, মাত্র ১৫ বছর পর ৪০ শতাংশ পানির যোগান কমে যাবে। সেই মোতাবেক ২০৩০ সাল নাগাদ বিশ্ববাসী বর্তমান সময়ের তুলনায় ৪০ শতাংশ বেশি পানি সঙ্কটে পড়বে। গত শুক্রবার জাতিসংঘ বিশ্ব পানি উন্নয়ন প্রতিবেদনে এই তথ্য দেওয়া হয়েছে।

ওই প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে, মজুদ হ্রাস পেয়ে ২০৫০ সাল নাগাদ বিশ্বে পানির চাহিদা ৫৫ শতাংশ বেড়ে যাবে। বর্তমানে যে হারে পানি ব্যবহৃত হচ্ছে, তাতে আগামী ১৫ বছরে অর্থাৎ ২০৩০ সালে প্রয়োজনের মাত্র ৬০ শতাংশ পানি পাবে বিশ্ববাসী তাই ৪০ শতাংশ পানির যোগান কম হবে। ওই প্রতিবেদনে পানি সঙ্কটের কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, জনসংখ্যা বৃদ্ধি ও জলবায়ু পরিবর্তন এর মূল কারণ।

আরও বলা হয়, বর্তমানে বিশ্বে মোট জনসংখ্যা ৭শ’ ৩০ কোটি। ২০৩০ সাল নাগাদ তা বৃদ্ধি পেয়ে ৯শ কোটিতে পৌঁছাবে। জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বৃষ্টিপাতের ধরণের বেশ অনিশ্চয়তায় বেড়েছে। যে কারণে ভূ-গর্ভস্থ পানির স্তরও ক্রমেই নিচে নেমে যাচ্ছে। জনসংখ্যা বৃদ্ধির কারণে কৃষিকাজ, শিল্প এবং ব্যক্তিগত ব্যবহারের জন্য ভূ-গর্ভস্থ পানির চাহিদাও বাড়বে।

এতে আরও বলা হয়, পানির পর্যাপ্ত যোগান না থাকলে ফসল উৎপাদন যেমন বিঘ্নিত হবে, তেমনি বাস্তুসংস্থান ভেঙে পড়বে। আবার শিল্প কারখানারও পতন ঘটবে। এসব কারণে রোগ ও দারিদ্র্য ভয়াবহ অবস্থায় পৌঁছাবে। আবার পানির জন্য বিভিন্ন অঞ্চলে হিংসা হানাহানির মতো ঘটনাও ঘটবে।

Advertisements
Loading...