গুগলের নয়া প্রযুক্তি: টাচস্ক্রিণে বিপ্লব ঘটাতে যাচ্ছে!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ প্রযুক্তির বদৌলতে দুনিয়ার সবকিছুই যেনো রাতারাতি পাল্টে যাচ্ছে। উন্নতির গতি যেনো অপ্রতিরোধ্য। এবার গুগলের নয়া এক প্রযুক্তি টাচস্ক্রিণে বিপ্লব ঘটাতে যাচ্ছে।

Google's new technology

বিজ্ঞান যেনো অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে চলেছে। সায়েন্স ফিকশন সিনেমার গল্প মনে হচ্ছে বাস্তবে রূপ নিতে যাচ্ছে। বর্তমান যুগের বৈজ্ঞানিক আবিস্কার সকল কল্প-কাহিনীকেও যেনো হার মানাচ্ছে। এবার উদ্ভাবনের দৌঁড়ে এগিয়ে রয়েছে শীর্ষ সার্চ ইঞ্জিন গুগল। জানা গেছে, গুগলের সোলি প্রজেক্ট সম্প্রতি নতুন একটি ইন্টার‌্যাকশন সেন্সর তৈরি করেছে। এটিতে রাডার টেকনোলজি ব্যবহার করা হয়েছে। আঙ্গুলের নড়াচড়ায় এটি শনাক্ত করতে পারে। প্রতি সেকেন্ডে এটি ১০ হাজার ফ্রেম ক্যাপচার করতে সক্ষম।

জানা গেছে, এই প্রথমবারের মতো এই ধরনের ডিভাইস গুগল উদ্ভাবন করলো। এটি দিয়ে যেকোনো ডিভাইস হাতের স্পর্শ ছাড়া রিমোর্টের মতো পরিচালনা করা যাবে। ওই ডিভাইসটিতে কম্পিউটারের ছোট আকারের চিপসও ব্যবহার করা হয়েছে। হাতের নড়াচড়া শনাক্ত করে ভার্চুয়াল ডায়াল মেশিনে এটি পাঠিয়ে দেয়। এভাবে এটির সাহায্যে স্পিকারের সাউন্ডও কমানো বাড়ানো যায়। একই সঙ্গে এটি স্মার্টয়াচে ভার্চুয়াল টাচপ্যাড হিসেবেও কাজ করে।

সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, আবার এই চিপসটিতে ছোট আকারে অঙ্গভঙ্গী শনাক্তকারী রাডারও রয়েছে। স্বল্প দূরত্বে যেটি হাতের নড়াচড়া শনাক্ত করে আবার সেটি ফ্রেমে ধারণ করতে পারে। আবার অবিশ্বাস্য হাইপার স্পিড ক্যাপচারও করতে পারে। ছোট এই চিপসটি অন্য যেকোনো ডিভাইসে সংযুক্ত করে ব্যবহার করা যাবে।

তবে গুগলের এই প্রকল্পটি পরীক্ষা-নীরিক্ষার পর্যায়ের রয়েছে। এটি সফল হলে টাচ ডিভাইস বলতে কিছু আর থাকবে না। আঙ্গুলের ইশারায় কথা শুনবে ওই যন্ত্র। পুরোপুরি কাজ করলে এটির মাধ্যমে আমুল পরিবর্তন আনা সম্ভব হবে।

Advertisements
Loading...