ডেনমার্ক হতে নগদ টাকা উঠে যাচ্ছে!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ আবার সেই আদি যুগের মতো লেন-দেন সিস্টেম চালু হতে যাচ্ছে। ডেনমার্ক হতে নগদ টাকা উঠে যাচ্ছে সম্প্রতি এমন খবরে অনেকেই হতবাক!

Denmark is going to be the cash up

আবার সেই আদি যুগের মতো লেন-দেন সিস্টেম চালু হতে যাচ্ছে। ডেনমার্ক হতে নগদ টাকা উঠে যাচ্ছে সম্প্রতি এমন খবরে অনেকেই হতবাক!

আদি যুগে এক সময় টাকার প্রচলন ছিল না। তখন পণ্যের মাধ্যকমে পণ্যের লেন-দেন হতো। তারপরের যুগে আবার স্বর্ণমুদ্রার প্রচলন হলো। তারপর কালক্রমে টাকার যুগ এলো। ডেনমার্কে নাকি নগদ টাকার প্রচলন উঠে যাচ্ছে। খবরটি বিশ্ববাসী অবশ্যই হতবাক করেছে তাতে সন্দেহ নেই।

ইন্ডিয়া টাইমসে বলা হয়, খুব শিগগিরই সব ধরনের নগদ টাকা ব্যবহারের চল উঠে যাচ্ছে স্ক্যান্ডিনেভিয়ান এই দেশ ডেনমার্কে হতে। ‘নগদ অর্থবিহীন অর্থনীতি’ বা ‘ক্যাশলেস ইকোনমি’র উদ্যোগ নিতে যাচ্ছে ড্যানিশ সরকার। আগামী সেপ্টেম্বরে ড্যানিশ সাধারণ নির্বাচন নিয়ে এই ইস্যু এসেছে বেশ জোরেসোরেই।

ড্যানিশরা ইতিমধ্যে একটু একটু করে নগদ অর্থ ছাড়া লেন-দেন করা শিখে গেছে। ড্যানিশ জনগোষ্ঠীর এক তৃতীয়াংশ জনগণ বর্তমানে ‘মোবাইল পে’ ব্যবহার করে কেনাকাটা করে এবং বিল পরিশোধ করে। ‘মোবাইল পে’ হচ্ছে একটি মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন যার মাধ্যমে একজনের অ্যাকাউন্ট হতে আরেকজনের অ্যাকাউন্টে অর্থ হস্তান্তর করা হয়ে থাকে। আবার সুইডেন, ডেনমার্ক এবং ফিনল্যান্ডে ক্রেডিট কার্ড পেমেন্ট সিস্টেমকেও গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে, যাতে নগদ অর্থের প্রয়োজন না হয়।

এ বিষয়ে ড্যানিশ সরকার বলছে, আগামী বছরের মধ্যে খুচরা বাজার হতেও নগদ অর্থ তুলে নেওয়া হবে। দর্জিবাড়ি, মুদির দোকান, গ্যাস স্টেশন ও রেস্টুরেন্টে ডিজিটাল পদ্ধতিতে খরচ মেটানো হবে। পূর্বে এসব খুচরা ব্যবসায়ীদের নগদ অর্থ প্রদানের বাধ্যবাধকতা ছিল। শিগগিরই সেটি তুলে নেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।

জানা গেছে, সেখানকার সাধারণ নির্বাচনকে সামনে রেখে এই ‘ক্যাশলেস ইকোনমি’র ঘোষণা করেছে ডেনমার্কের সরকার। অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বাড়ানো, খরচ কমানো ও ব্যবসা সম্প্রসারণ ঘটাতে এমন একটি পথে এগিয়ে যাচ্ছে ডেনমার্ক। সরকারের এই প্রস্তাবটি এখন শুধুমাত্র সংসদের পাস হওয়ার অপেক্ষায় রয়েছে।

এই বিষয়টি সংসদে পাস হতে বেশি ঝক্কি পোহাতে হবে না বলেই মনে করা হচ্ছে। কারণ ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে ছোটখাটো অর্থ পরিশোধে ইতিমধ্যে অভ্যস্ত হয়েছে ড্যানিশরা। যেমন- এক প্যাকেট চুইংগাম কিনলেও সেটির দাম কার্ডেই পরিশোধ করা হয়।

সংবাদ মাধ্যমে খবরে আরও বলা হয়েছে, ডেনমার্কের ফিন্যান্সিয়াল ইনস্টিটিউশন লবিস্ট ‘ফিন্যান্সরাডেট’ বলছে যে, ‘ক্যাশলেস ইকোনমি’তে গেলে দোকানগুলোর পয়সা অনেক সাশ্রয় হবে, নিরাপত্তা নিশ্চিত হবে ও ক্যাশকাউন্টারে বসে ভাংতি টাকা দেওয়ার ঝামেলাও পোহাতে হবে না।

Advertisements
Loading...