একজন নির্জনবাসীর জীবন-যাপনের গল্প!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ পৃথিবীতে জন্ম নেওয়া মানুষের জীবন-যাপনের ধরণ এক এক রকম হয়ে থাকে। কেও আবার একাকি নির্জনে বসবাসে বেশি আগ্রহী। এমনই একজন নির্জনবাসীর জীবন-যাপনের কাহিনী রয়েছে আজ।

story of a hermit living

এমন একজন নির্জনবাসী হলেন সিস্টার রাছেল ডেন্টন। তিনি একজন ক্যাথলিক নির্জনবাসী। তিনি বেড়ে উঠেছেন তার সবজী বাগানে তার তাবুতে। ডেন্টন তার বিড়ালকে খাবার খাওয়ান আর প্রার্থনা করেন পার্শস্থ উত্তর ইংল্যান্ডের লিঙ্কনশায়ারের এসটি কাথবের্টস আশ্রমে। ইংল্যান্ড গ্রামের কাছাকাছি তার সহজ লাল ইটের ঘরে তিনি বসবাস করেন। যার চারদিকে রয়েছে সবুজ গ্রামাঞ্চলের হাতছানি।

৫২ বছর বয়সী এই খ্রীষ্টান সন্ন্যাসী তার ঘরের টুকিটাকি বিষয়ের সঙ্গে পৃথক আরও দুটি বিষয়কে যুক্ত করেছেন। সেটি হলো, তার টুইটার অ্যাকাউন্ট আপডেট করা ও ফেসবুক চেক করা।

ডেন্টন সিসিটিভি নিউজকে বলেছেন, ‘বর্তমানে সামাজিক মাধ্যম একটি অত্যাবশ্যকীয় বিষয়।’ তিনি আরও বলেন, ‘টুইট খুব বিরল হলেও তা মূল্যবান।’ আর তাই তিনি টুইটার প্রোফাইলে নিয়মিতভাবে লেখেন। আবার অনলাইনে কেনাকাটা এবং তার বন্ধুদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখার জন্য তিনি ইন্টারনেট ব্যবহার করেন।

ওই সংবাদ মাধ্যমকে ডেন্টন নির্জন জীবন-যাপন সম্পর্কে বলেছেন, ‘আমি নির্জনবাসী তবে আমিও একজন মানুষ।’ তবে ডেন্টন জানান তার শেষ ইচ্ছা, তিনি তার এই একাকী জীবনকে প্রার্থনা এবং ধ্যানের মাধ্যমে এগিয়ে নিবেন।

এভাবেই একজন নির্জনবাসীর জীবন-যাপনের কাহিনী গড়ে উঠেছে। নির্জনে একাকী জীবন-যাপন এখন তার অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। প্রমাণ হয়েছে মানুষ ইচ্ছা করলে নিজের জীবন ধারাও পরিবর্তন করতে পারেন। তথ্যসূত্র: channelnewsasia.com

Advertisements
Loading...