মুসলিমদের বিরুদ্ধে কথা বলা ট্রাম্পের পারিবারিক চিকিৎসক মুসলিম!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ যিনি মুসলমানদের বিরুদ্ধে এতো লম্বা লম্বা কথা বলে বিশ্ববাসীর কাছে কুখ্যাতি অর্জন করেছেন, সেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট মনোনয়ন প্রত্যাশী ডোনাল্ড ট্রাম্পের পারিবারিক চিকিৎসকও একজন মুসলিম!

Trump & Muslim Family Physicians

সংবাদ মাধ্যমের সাম্প্রতিক সময়ে যিনি বহুল এক আলোচিত ব্যক্তিতে পরিণত হয়েছে সেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রিপাবলিকান দলীয় প্রেসিডেন্ট মনোনয়ন প্রত্যাশী ডোনাল্ড ট্রাম্পের চিকিৎসকও একজন মুসলিম। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মুসলমান প্রবেশে নিষেধাজ্ঞার বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন তার নিজের দাদী লুয়িস। ৯১ বছর বয়স্ক লুয়িস গত শুক্রবার নাতির বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে আলোচনায় চলে আসেন। ট্রাম্পের ওই বক্তব্য মুসলিমদের কট্টর বিরোধিতাকারী ইসরাইলও প্রতিবাদ করে!

সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়, ট্রাম্পের দাদীর চিকিৎসক একজন মুসলমান অভিবাসী চিকিৎসক। তার চিকিৎসক ফাহিম রাহিম ১৯৯৭ সাল হতে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করছেন। কয়েক বছর ধরে রাহিম লুয়িসের কিডনির চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। গত সপ্তাহে স্থানীয় একটি রেডিও সাক্ষাৎকারে ট্রাম্পের দাদী লুয়িস তার কিডনির চিকিৎসককে ট্রাম্পের মুসলিম বিরোধী বক্তব্যের জন্য প্রতিবাদ জানাতে বলেন।

ওই চিকিৎসক রাহিম এবিসি নিউজকে বলেছেন, মানুষের প্রতি ভালোবাসা এবং মানবতাবোধ হতেই লুয়িস এমন মন্তব্য করেছেন। তবে এটিকে আমাদের জন্য খুবই বিস্ময়কর মনে হয়েছে। কোনো ধর্ম নয়, মানুষ হিসেবেই লুয়িস সবাইকে মূল্যায়ন করেছেন। তার এমন মন্তব্য প্রমাণিত হয়েছে, কোন শক্তিই মানুষের বন্ধনকে ধ্বংস কিংবা পৃথক করতে পারবে না।

উল্লেখ্য, মানুষের প্রতি ট্রাম্পের দাদীর এমন দয়ালু বক্তব্য বিশেষ করে দেশটিতে চলা মুসলমানদের জন্য কিছুটা হলেও সুবাতাস বয়ে নিয়ে এসেছে। রিপাবলিকান দলের এই নেতা সম্প্রতি মুসলিম বিরোধী আক্রমণাত্মক বক্তব্য দিয়ে তীব্র সমালোচনায় মুখোমুখি হয়েছেন। তার এই বক্তব্যের কারণে বিশ্বব্যাপী নিন্দার ঝড় উঠেছে।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...