দুই দেশের ড্রাইভিং লাইসেন্সে চলবে গোটা বিশ্ব!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ এমন কথা হয়তো আগে কখনও শোনা যায়নি। মাত্র দুই দেশের ড্রাইভিং লাইসেন্স ভ্যালিড থাকলে চলা যাবে গোটা বিশ্বে!

Driving licenses of two countries will be world

এমন খবর শোনার পর বিশেষ করে যাদের নিজের গাড়ি রয়েছে তাদের নিজের গাড়ি নিয়ে বিদেশ ভ্রমণের স্বাদ চেখে দেখতে ইচ্ছে করবে? কারণ স্বাভাবিকভাবে গাড়ি নিয়ে যাওয়ার অর্থ হলো বিস্তর ঝামেলা পোহানো। এর কারণ হলো আপনার লাইসেন্স বিদেশে ব্যবহার করা যাবে না। ইচ্ছে করলেই গাড়ি নিয়ে চলে যেতে পারবেন না প্রতিবেশী কোনো দেশে। পাসপোর্ট থাকলেও হবে না। তবে ব্রিটেন এবং ফ্রান্সের ড্রাইভারদের পক্ষে সেটা করা সম্ভব। সে দেশের ড্রাইভাররা খুব অনায়াসেই নিজেদের লাইসেন্স নিয়ে পাড়ি দিতে পারেন যে কোনো দেশে! জানা গেছে, এতটাই নাকি শক্তিশালী ব্রিটেন এবং ফ্রান্সের লাইসেন্স!

সম্প্রতি একটি সার্ভে করা হয়, সে সার্ভের বিষয় ছিলো বিশ্বের কোন দেশের ড্রাইভারের লাইসেন্স সবচেয়ে শক্তিশালী? এতে দেখা গেছে, এই তালিকায় প্রথমেই উঠে আসে ব্রিটেন এবং ফ্রান্সের নাম। এই দুটি দেশের ড্রাইভাররা অনায়াসেই নিজেদের চারচাকায় ভর করে চলে যেতে পারবেন বিশ্বের যে কোনও দেশে। লাইসেন্স নিয়ে কোনও ঝক্কি-ঝামেলায় তাদের পড়তে হবে না। পৃথিবীর বেশ কিছু দেশ অবশ্য বিদেশী লাইসেন্সের বদলে নিজেদের দেশের লাইসেন্স দিয়ে দেয় ড্রাইভারদের। তারজন্য পৃথক করে টেস্ট দিতে হয় না তাদের।

তবে কিছু দেশের নিয়ম, সে দেশে কোনও বিদেশী ড্রাইভার গাড়ি চালাতে গেলেই পৃথক করে লাইসেন্স নিতে হয় তাকে। পৃথক পরীক্ষায় পাশ করলে, তবেই মেলে লাইসেন্স। শক্তিশালী ড্রাইভিং লাইসেন্সের তালিকার সঙ্গে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের লাইসেন্স। তবে লাইসেন্স নিয়ে সবচেয়ে বেশি বিধি নিষেধ রয়েছে রাশিয়ায়। রাশিয়ার ড্রাইভাররা সেদেশের লাইসেন্স নিয়ে অন্য কোনও দেশে গাড়ি চালাতে পারেন না। অপরদিকে চীনের লাইসেন্সের ছাড় রয়েছে বিশ্বের ২১টি দেশে।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...