বোলিংয়ে নিষিদ্ধ তাসকিন-সানি: বাংলাদেশের জন্য বড় ধাক্কা

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ হঠাৎ করেই আইসিসি বোলিংয়ে নিষিদ্ধ করেছে বাংলাদেশের দুই দুই খেলোয়াড় তাসকিন ও সানিকে। এমন সিদ্ধান্তে দেশ-বিদেশের অগণিত ক্রিকেটপ্রেমীরা ব্যথিত হয়েছেন। এটি বাংলাদেশের জন্যও বড় ধাক্কা।

Taskin-Sunny banned

টি-২০ বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের পূর্বে বড় এক ধাক্কা খেলো বাংলাদেশ। অ্যাকশন অবৈধ প্রমাণিত হওয়ায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিষিদ্ধ করা হয়েছে টি-২০ বিশ্বকাপ দলের একমাত্র বিশেষজ্ঞ স্পিনার আরাফাত সানি এবং পেসার তাসকিন আহমেদকে।

আজ (শনিবার) বিকালে আইসিসি দুই বোলারকে সাময়িক নিষিদ্ধ করার কথা জানিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিসিবিকে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয় যে, তাসকিনের সব ডেলিভারি বৈধ ছিল না।

বেঙ্গালুরুতে অবস্থানরত বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান আকরাম খান জানান, আজ (শনিবার) দুপুরে তারা জেনেছেন সানির অ্যাকশন অবৈধ প্রমাণিত হয়েছে। তার স্থান দলে এসেছেন সাকলাইন।

৯ মার্চ নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম রাউন্ডের ম্যাচে সানি এবং তাসকিনের বোলিং অ্যাকশন নিয়ে প্রশ্ন উঠানো হয়। ১২ মার্চ ধর্মশালা হতে চেন্নাইয়ে গিয়ে পরীক্ষা দেন তিনি। পরে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা জানান যে, পরীক্ষার পর নিজেকে নিয়ে বেশ আত্মবিশ্বাসী ছিলেন এই বাঁহাতি স্পিনার। তবে তাসকিনের অ্যাকশন নিয়ে কোনো সংশয় নেই বলেই দাবি করেছিলেন পেস বোলিং কোচ হিথ স্ট্রিক। প্রথমে সংবাদ মাধ্যমের খবরে শুধু সানিকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে জানানো হলেও পরে সংবাদ আসে তাসকিনকেও নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

বিষয়টি সংবাদ মাধ্যমে আসার পর দেশের ক্রিকেটপ্রেমী সহ অগণিত ভক্ত ও অনুরাগীদের মধ্যে হতাশা বাড়তে থাকে। হঠাৎ করে দুজন বোলারকে নিষিদ্ধ করাকে অনেকেই ‘ষড়যন্ত্র’ বলেও মন্তব্য করেছেন।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...