টিনের টোং, তাই নাকি দেশের সবচেয়ে স্মার্ট হোটেল!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ টিনের টোং ঘরের মতো হলেও থাকা-খাওয়া সবটাই রাজকীয়। কমফর্ট লেভেলও একেবারে হাই। তাই এই হোটেলটিকে দেশের সবচেয়ে স্মার্ট হোটেল বলা হয়!

smart hotel in country

সংবাদ মাধ্যমে এই হোটেলের খবর প্রকাশ হওয়ার পর হৈ হৈ পড়ে গেছে। এই হোটেলের ব্যবস্থাপনা এতোই টিপটপ যে ট্যুরিস্টরাও এককথায় স্পিচলেস। তবে ভারতের আহমেদাবাদের এই স্মার্ট হোটেলের চমক অন্য জায়গায়। যা জেনে, নির্ঘাত চোখ কপালে উঠবে যে কারও।

চোখে যা দেখা যাচ্ছে, তাতে অনেক ভাবনায় আসতে পারে। তবে অ্যাবনর্মাল ঠেকবে যদি আপনি জানেন, আসলে এ কিসসা একদম ভীন্ন। ইট-পাথর-সিমেন্টের প্রোডাক্ট নয় এই হোটেলটিদে। এটি যে জিনিস দিয়ে তৈরি, সেটি বাতিল হয়ে যাওয়া শিপিং কন্টেনার থেকে। তাতেই রং চড়িয়ে, সাজিয়ে-গুছিয়ে তৈরি করা হয়েছে এক-একটা স্পেশাল লাক্সারি হোটেল! যেখানে স্বাচ্ছন্দ্যের কোনও খামতি নেই একেবারেই।

smart hotel in country-2

এই হোটেলের পরিকল্পনা করেছে ভারতের আহমেদাবাদের সংস্থা হাইরাইজ হসপিটালিটি। এই পরিষেবার নাম দেওয়া হয়েছে বিটল স্মার্ট’ওটেলস। দেশের যে কোনও স্থানে ৯০ দিনের মধ্যে পৌঁছে যেতে পারে এই স্মার্ট হোটেলটি! শুধু এমন সুপার লাক্সারি বেডরুম, ওয়াশ রুম নয়, হল-রেস্টুরেন্টও থাকছে এর ভিতরেই। ২০১৮-র মধ্যে গোটা দেশে এমন ২০০০ হোটেল রুম ছড়িয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে সংস্থার কর্তারা। আর সেই ভাবেই এগিয়ে চলেছে তাদের কাজ।

Advertisements
Loading...