ইন্দোনেশিয়া সৌন্দর্যপূর্ণ ইস্তিকলাল মসজিদ

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার বৃহত্তম এবং বিশ্বের ৫ম বৃহত্তর মসজিদ হলো এই ইস্তিকলাল মসজিদ

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ শুভ সকাল। শুক্রবার, ১৭ মার্চ ২০১৭ খৃস্টাব্দ, ৩ চৈত্র ১৪২৩ বঙ্গাব্দ, ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৩৮ হিজরি। দি ঢাকা টাইমস্ -এর পক্ষ থেকে সকলকে শুভ সকাল। আজ যাদের জন্মদিন তাদের সকলকে জানাই জন্মদিনের শুভেচ্ছা- শুভ জন্মদিন।

ইন্দেনেশিয়ার জাকার্তায় অবস্থিত এই ইস্তিকলাল মসজিদটি । দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার বৃহত্তম এবং বিশ্বের ৫ম বৃহত্তর মসজিদ হলো এই ইস্তিকলাল মসজিদ।

১৯৭৮ সালে এই মসজিদটি নির্মাণ করা হয়। এই মসজিদটির আয়তন ৯৫,০০০ স্কয়ার মিটার। লোক ধারণ ক্ষমতা ১,২০,০০০ জন। নামাজের মূল স্থান অর্থাৎ মসজিদের মধ্য স্থানে রয়েছে বিশাল আকৃতির গম্বুজ যা ১২টি বৃত্তাকার পিলারের উপর তৈরি। এই মসজিদটিতে বড় গম্বুজটি ছাড়াও রয়েছে আরও একটি ছোট গম্বুজ। একটি মিনার রয়েছে যার উচ্চতা ৯০ মিটার।

চার স্তরের বেলকনীবিশিষ্ট এই মসজিদটিতে আয়োজন করা হয় ইসলামিক লেকচার, এক্সিবিশন, সেমিনার কন্ফারেন্স। এখানে পৃথকভাবে মহিলা ও শিশুদের ইসলাম শিক্ষা গ্রহণের ব্যবস্থা রয়েছে।

‘ইস্তিকলাল’ হলো আরবী শব্দ, যার বাংলা অর্থ হলো স্বাধীনতা। ইন্দোনেশিয়া ১৯৪৯ সালে স্বাধীনতা লাভ করার পর হতেই সেখানে ‘ইস্তিকলাল’ নামে জাতীয় মসজিদ নির্মাণের উদ্দ্যোগ গ্রহণ করা হয়। ডিজাইন ও অন্যান্য ব্যবস্থাপনা ঠিক করে ১৯৬১ সালে মসজিদটির ফাউন্ডেশন দেওয়া হয়। তবে মসজিদটির নির্মাণ কাজ শেষ হতে অনেক সময় লাগে। ১৯৭৮ সালে মসজিদটির নির্মাণ কাজ শেষ হয়। এই মসজিদটির ভিত্তি স্থাপন হতে সম্পন্ন হওয়া পর্যন্ত মোট ১৭ বছর সময় লেগে গেছে। অত্যন্ত দৃষ্টিনন্দন ও কারুকার্য করা এই মসজিদটি সত্যিই একটি দেখার মতো মসজিদ। তাই এই মসজিদকে বিশ্বের ৫ম বৃহত্তম মসজিদ হিসেবে ধরা হয়।

ছবি ও তথ্য: http://dhakadigest.net এর সৌজন্যে।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...