The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

পুতিন বললেন, ‘রুশ-মার্কিন পরমাণু যুদ্ধ হলে কেও বাঁচবে না’

পুতিনের এই সাক্ষাৎকারের ভিত্তিতে অলিভার স্টোন একটি ডকুমেন্টারিও তৈরি করবেন যা আগামী সপ্তাহে মার্কিন টিভি চ্যানেলে সম্প্রচার করা হবে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন যে, তার দেশের সঙ্গে আমেরিকা যদি সত্যিই পরমাণু যুদ্ধ শুরু হয় তাহলে সে যুদ্ধ এতোটাই ভয়ংকর হবে যে, বিজয় দাবি করার মতো কেও বেঁচে থাকবে না!

পুতিন বললেন, ‘রুশ-মার্কিন পরমাণু যুদ্ধ হলে কেও বাঁচবে না’ 1

মার্কিন চলচ্চিত্র পরিচালক অলিভার স্টোনকে দেওয়া এক একান্ত সাক্ষাৎকারে পুতিন এই কথা বলেছেন বলে সংবাদ মাধ্যম সূত্রে জানা যায়। পরমাণু যুদ্ধ হলে আমেরিকা সুবিধাজনক অবস্থায় থাকবে? এমন প্রশ্নের জবাবে পুতিন বলেছেন, সেই যুদ্ধের ভয়াবহতা এতোটাই বেশি হবে যে কেও বিজয় দাবি করার মতো অবস্থায় থাকবে না।

পুতিনের এই সাক্ষাৎকারের ভিত্তিতে অলিভার স্টোন একটি ডকুমেন্টারিও তৈরি করবেন যা আগামী সপ্তাহে মার্কিন টিভি চ্যানেলে সম্প্রচার করা হবে বলে জানানো হয়।

ন্যাটো সামরিক জোট সম্পর্কে রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিন আরও বলেছেন, এই জোটকে আমেরিকা তার পররাষ্ট্রনীতির হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে। আর সদস্য দেশগুলোও আমেরিকার দাস হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে। পুতিন বলেছেন, কোনো দেশ ন্যাটো জোটের সদস্য হলে তার পক্ষে আমেরিকার চাপ মোকাবেলা করা মোটেও সম্ভব হয় না এবং যেকোনো মুহূর্তে এসব দেশে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র বিধ্বংসী ব্যবস্থা, নতুন সামরিক ঘাঁটি তৈরি বা হামলায় ব্যবহারযোগ্য অন্য যেকোনো রকমের অস্ত্র মোতায়েন করতে পারে আমেরিকা।

ওই সাক্ষাৎকারে ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, ন্যাটো সামরিক জোটের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার জন্য আমেরিকা শত্রু দেশের সন্ধানে রয়েছে যাতে করে ওই জোটের ন্যায্যতা প্রমাণ করা সম্ভব হয়। পুতিন প্রশ্ন করে বলেন- এখন তো পূর্ব ব্লক নেই, সোভিয়েত ইউনিয়নও নেই। তাহলে এখনও কেনো ন্যাটো জোটের অস্তিত্ব রয়েছে?

ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, ”দিন দিন ন্যাটো জোট রাশিয়ার জন্য হুমকি বাড়িয়ে তুলছে। এই অবস্থায় আমরা যেসব ঘাঁটি হতে ঝুঁকি অনুভব করছি সেগুলোর দিকে আমাদের ক্ষেপণাস্ত্র তাক করবো।” তিনি বলেছেন, পরিস্থিতি বর্তমানে অনেক বেশি উত্তপ্ত হয়ে উঠছে।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...