পেরুর বিখ্যাত মাচু পিচুর পাহাড়

এই মাচু পিচুই সম্ভবত ইনকা সভ্যতার সবচেয়ে পরিচিত নিদর্শন

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ শুভ সকাল। শনিবার, ১৭ জুন ২০১৭ খৃস্টাব্দ, ৩ আষাঢ় ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২১ রমজান ১৪৩৮ হিজরি। দি ঢাকা টাইমস্ -এর পক্ষ থেকে সকলকে শুভ সকাল। আজ যাদের জন্মদিন তাদের সকলকে জানাই জন্মদিনের শুভেচ্ছা- শুভ জন্মদিন।

যে ছবিটি আপনারা দেখছেন সেটি পেরুর বিখ্যাত মাচু পিচুর পাহাড়। এটি মূলত পেরুর উরুবাম্বা উপত্যকার ওপরে একটি পর্বতচূড়ায় অবস্থিত।

মাচু পিচু কলম্বাসের আমেরিকা আবিষ্কারের পূর্বের সময়কার একটি ইনকা শহর। সমুদ্রপৃষ্ঠ হতে এটির উচ্চতা ২৪০০ মিটার বা ৭,৮৭৫ ফুট। এটি মূলত পেরুর উরুবাম্বা উপত্যকার ওপরে একটি পর্বতচূড়ায় অবস্থিত।

সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা যায়, এই মাচু পিচুই সম্ভবত ইনকা সভ্যতার সবচেয়ে পরিচিত নিদর্শন, যাকে ইনকাদের হারানো শহর বলা হযে থাকে। এটি নির্মিত হয় ১৪৫০ খৃস্টাব্দের দিকে, এর একশ বছর পর ইনকা সভ্যতা যখন স্পেন দ্বারা আক্রান্ত হয়েছিল, তখন এটি মূলত পরিত্যাক্ত হয়ে পড়ে।

কয়েকশ’ বছর অজ্ঞাত থাকার পর এটি ১৯১১ সালে হাইরাম বিঙাম নামে এক মার্কিন ঐতিহাসিক আবার সারাবিশ্বের নজরে নিয়ে আসেন। তারপর হতে মাচু পিচু পর্যটকদের কাছে একটি আকর্ষণীয় এবং দর্শনীয় স্থান হয়ে উঠেছে।

১৯৮১ সালে পেরুর সংরক্ষিত ঐতিহাসিক এলাকা হিসেবে ঘোষণা করা হয় এটিকে। ১৯৮৩ সালে ইউনেস্কো এটিকে তাদের বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থানের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করেছে।

ছবি ও তথ্য: http://www.natunsomoy.com এর সৌজন্যে।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...