কাতারের উট-ভেড়া বহিষ্কার করলো সৌদি আরব!

ইতিমধ্যে ১৫ হাজার উট ও ১০ হাজার ভেড়া সীমান্ত অতিক্রম করে কাতারে ফিরে গেছে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ সৌদি আরবের পশুচারণ ভূমি হতে কাতারের সকল উট ও ভেড়া সরিয়ে নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে সৌদি আরব। দুই দেশের মধ্যে তীব্র উত্তেজনার চরম পর্যাযে এসে সৌদি আরব সর্বশেষ এমন পদক্ষেপ নিলো।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, ইতিমধ্যে ১৫ হাজার উট ও ১০ হাজার ভেড়া সীমান্ত অতিক্রম করে কাতারে ফিরে গেছে। ফিরে যাওয়া উট ও ভেড়ার পালের জন্য কাতার একটি জরুরি আশ্রয়কেন্দ্রও খুলেছে। সেখানে পানি এবং পশুখাদ্যের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। কাতার যেহেতু ছোট একটি দেশ, তাই অনেক কাতারি তাদের উট ও ভেড়া সৌদি আরবের বিভিন্ন চারণভূমিতে নিয়ে রাখতো।

এই মাসের শুরুতে সৌদি আরবসহ বেশ কয়েকটি উপসাগরীয় দেশ কাতারের সঙ্গে সম্পর্ক বিচ্ছিন্ন করেছে। কাতার ইসলামি জঙ্গীবাদকে মদত দিচ্ছে এমন অভিযোগ তুলে তারা এই পদক্ষেপ নিয়েছে। কাতার অবশ্য বরাবরই এই অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে আসছে।

কাতারের পৌর ও পরিবেশ মন্ত্রণালয় বলেছে, ফিরে আসা উট এবং ভেড়ার পালের জন্য নতুন জায়গা খুঁজে না পাওয়া পর্যন্ত তাদের অস্থায়ী আশ্রয় শিবিরে রাখা হবে। কাতারের একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, এই পর্যন্ত প্রায় ২৫ হাজার উট এবং ভেড়া সৌদি আরব হতে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সম্প্রতি পোস্ট করা ভিডিওতে দেখা যায় যে, ভেড়া এবং উটের পাল সীমান্ত অতিক্রম করে কাতারে প্রবেশ করছে। কাতারি পশুপালকরা সৌদি আরবের এই পদক্ষেপে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। আলী মাগারেহ নামের একজন বলেছেন, ‘আমরা এমন রাজনীতির সঙ্গে কখনও যুক্ত হতে চাই না। আমরা এতে মোটেও খুশি নই।’

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...