বসনিয়ার ঐতিহাসিক ফরহাদ পাশা মসজিদ

ফরহাদ পাশা ঐতিহাসিক মসজিদটি খ্রিষ্টানদের হামলায় চরমভাবে ধ্বংসপ্রাপ্ত হয়

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ শুভ সকাল। শুক্রবার, ৩০ জুন ২০১৭ খৃস্টাব্দ, ১৬ আষাঢ় ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ৫ শাওয়াল ১৪৩৮ হিজরি। দি ঢাকা টাইমস্ -এর পক্ষ থেকে সকলকে শুভ সকাল। আজ যাদের জন্মদিন তাদের সকলকে জানাই জন্মদিনের শুভেচ্ছা- শুভ জন্মদিন।

যে ছবিটি আপনারা দেখছেন সেটি বসনিয়ার ঐতিহাসিক ফরহাদ পাশা মসজিদ। বসনিয়ার এই ঐতিহাসিক মসজিদটি দীর্ঘদিন পর আবার সচল করা হয়।

বসনিয়ার এই ফরহাদ পাশা নামক ঐতিহাসিক মসজিদ দীর্ঘ ২৩ বছর বন্ধ থাকার পর ২০১৬ সালে আবার এক জাকজমক অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে সক্রিয়ভাবে চালু করা হয়।

জানা যায়, বসনিয়ার বানিয়া সের্ব শহরের ফরহাদ পাশা মসজিদটি ২০১৬ সালের ৭ এপ্রিল স্থানীয় হাজার হাজার মুসলমান ও পদস্থ কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে নতুনভাবে উন্মুক্ত হয়। এই মসজিদটি বসনিয়ার ঐতিহাসিক মসজিদ হিসেবে পরিচিত।

বসনিয়া ও হার্জেভিনিয়ার ক্রুসেড যুদ্ধের সময় হাজার হাজার মুসলমান সার্বীয় খ্রিষ্টানদের হাতে নিহত হন। এই সময় মুসলমানদের অনেক মসজিদ খ্রিষ্টান হাতে ধ্বংসের শিকার হয়েছিল এটির তার একটি। ফরহাদ পাশা ঐতিহাসিক মসজিদটিও খ্রিষ্টানদের হামলায় চরমভাবে ধ্বংসপ্রাপ্ত হয়ে যায়। তখন থেকেই এই মসজিদটি পরিত্যাক্ত অবস্থাতে পড়েছিল।

এরপর তুর্কি সরকার এই মসজিদটি সংস্কার ও পূন:নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করে। তুর্কি সরকারের আর্থিক সহযোগিতায় মসজিদটি আবারও নতুন প্রাণ ফিরে পায়।

তথ্য: http://bd.shabestan.ir এর সৌজন্যে।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...