The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

ডেস্ট্রয়ার বানিয়ে প্রদর্শন: ভারতকে চাপের মধ্যে ফেলতে চাই চীন?

টাইপ ০৫৫ আসার ফলে নৌ শক্তিতে ভারতকে অনেকটা পিছনে ফেলে দিলো চীন

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ যুদ্ধজাহাজ তৈরি করেছে চীন। তবে এটি তৈরি করে ভারতকে চাপে ফেলে দিচ্ছে বলেই মনে করা হচ্ছে। গত বুধবার চীনের সাংহাই বন্দরে ক্ষেপণাস্ত্র বিধ্বংসী টাইপ ০৫৫ যুদ্ধজাহাজ প্রকাশ্যে এনেছে বেইজিং। ‌

ডেস্ট্রয়ার বানিয়ে প্রদর্শন: ভারতকে চাপের মধ্যে ফেলতে চাই চীন? 1

এই টাইপ ০৫৫ যুদ্ধজাহাজ একসঙ্গে ১২০ ক্ষেপণাস্ত্র বহন করতে সক্ষম। অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হলে এটির ওজন দাঁড়াবে ১২ হাজার টন।

প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, টাইপ ০৫৫ আসার ফলে নৌ শক্তিতে ভারতকে অনেকটা পিছনে ফেলে দিলো চীন। ভারত এ পর্যন্ত সবচেয়ে বড় যুদ্ধজাহাজ ১৫বি ‘‌বিশাখাপত্তনম’‌ প্রকল্প হাতে নিয়েছে। তবে এখনও তা নৌ-বাহিনীর হাতে আসেনি।

বলা হয়েছে, পূর্ণ অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হলে ১৫বি ‘বিশাখাপত্তনম’র ওজন দাঁড়াবে ৮ হাজার ২০০ টন। এই যুদ্ধজাহাজ আকাশে আঘাত হানার মতো ৫০টি ক্ষেপণাস্ত্র বহন করতে পারবে। তাছাড়া জাহাজ বিধ্বংসী ও ভূমিতে আঘাত হানতেও পারবে বিশাখাপত্তনম। বোঝাই যাচ্ছে ধারেভারে বিশাখাপত্তনম কোনোমতেই টাইপ ০৫৫ যুদ্ধজাহাজের সমকক্ষই নয়।

এদিকে চীনের এই টাইপ ০৫৫ যুদ্ধজাহাজে থাকছে শক্তিশালী রাডার। সমুদ্রে, ভূমিতে কিংবা আকাশে লক্ষ্যবস্তুতে নিখুঁতভাবে আঘাত হানতে এই রাডার ব্যবস্থা কার্যকর হবে।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের মার্চ হতে চীন ৫টি ৫২ডি বিধ্বংসী যুদ্ধজাহাজ নৌ-বাহিনীর হাতে তুলে দিয়েছে। ক্ষমতার দিক থেকে এগুলো ভারতের বিশাখাপত্তনম সিরিজের সমতুল্য। ভারত যখন একটিও এই ধরনের যুদ্ধজাহাজ আনতে পারেনি, ঠিক তখন ১৮টি জাহাজ নৌ-বাহিনীর হাতে দেবে চীন।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...