ভারতের উত্তরপ্রদেশে ছেলেদের হাফ প্যান্ট পরা নিষিদ্ধ!

ছেলেদের পোশাকের উপরেও বিধিনিষেধ চাপালো খাপ পঞ্চায়েত

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ভারতে গরু জবাই নিষিদ্ধসহ নানা খগড় নেমে আসে মুসলমাদের ওপর। তবে এবার একটু ব্যতিক্রমিই বলা যায় আর তা হলো ছেলেদের হাফ প্যান্ট পরা নিষিদ্ধ করা হয়েছে!

ভারতের উত্তরপ্রদেশের এক গ্রামে ছেলেদেরও হাফ প্যান্ট পরা নিষিদ্ধ করা হয়েছে! জিন্স পরতে মেয়েদের বাধা দেবে, আর ছেলেরা ছোট পোশাক পরে দিব্যি ঘুরবে-ফিরবে! এই ‘অসাম্য’ দূর করতেই এবার ছেলেদের পোশাকের উপরেও বিধিনিষেধ চাপালো খাপ পঞ্চায়েত।

সম্প্রতি ভারতের উত্তরপ্রদেশের ছোট্ট গ্রাম শামলিতে এই বিধান দেওয়া হয়েছে। সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, খাপ পঞ্চায়েত ব্যবস্থাকে ঢেলে সাজানোর সময়ই এই বিধিনিষেধ চাপানো হয় ছেলেদের উপর।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে এই খবর উঠে এসেছে। সেখানে খাপ পঞ্চায়েতের প্রধান নরেশ টিকেত বলেছেন, ”মেয়েরা জিন্স পরলে তা যদি সমাজের পক্ষে খারাপ হিসাবে দেখা হয়, তাহলে ছেলেরাই বা হাফ প্যান্ট পরবে কেনো? হাফ প্যান্টও সমাজের পক্ষে একটা খারাপ উদাহরণ। ছেলে ও মেয়েদের মধ্যে কোনও রকম ফারাক করতে চাইনা আমরা।”

২০১৪ সালে উত্তরপ্রদেশে এক সালিশি সভায় ইভটিজিং এড়াতে মেয়েদের জিন্স পরার উপর বিধিনিষেধ আনে এই খাপ পঞ্চায়েত। এমনকী মেয়েরা মোবাইল ফোনও ব্যবহার করতে পারবেন না বলে সে সময় জানানো হয়।

সম্প্রতি ওই গ্রামের খাপ ব্যবস্থাকে ঢেলে সাজানোর সময়ই সে বিষয়টি মাথায় রেখে খাপ স্বভিমান সম্মেলনের ৩৫ সদস্য নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে এই বিধিনিষেধ চাপিয়েছেন ছেলেদের উপর।

এদিকে এই বিধি নিষেধ আরোপের পর ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়েছে। বিষয়টিকে অনেকেই মেনে নিতে পারেন নি বলেই মনে হচ্ছে।

উল্লেখ্য, মুসলিম ধর্মে হাঁটুর উপরে প্যান্ট পরা নিষেধ। অর্থাৎ প্যান্ট পায়ের গিরির (টাকলু) উপর থাকতে হবে, তবে কোনো অবস্থাতেই হাঁটুর উপরে উঠা চলবে না।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...