‘বিগ বেন’ ঘড়ির সেই ঘণ্টাধ্বনি বন্ধ হয়ে যাচ্ছে!

সংস্কারকাজের জন্য সাময়িকভাবে ২০২১ সাল পর্যন্ত ‘বিগ বেন’ ঘড়িটি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ বিগ বেনের ঘণ্টাধ্বনির কথা অনেকের জানা। যুক্তরাজ্যের সেই খ্যাতিমান ‘বিগ বেন’ ঘড়ির সেই ঘণ্টাধ্বনি এবার বন্ধ হয়ে যাচ্ছে!

যুক্তরাজ্যের সেই বিখ্যাত ও ঐতিহ্যবাহী ঘড়ি ‘বিগ বেন’-এর ঘণ্টাধ্বনি দীর্ঘ ১৫৭ বছর পর সাময়িকভাবে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। আগামী সপ্তাহ হতে ২০২১ সাল পর্যন্ত এই ঘড়ি আর বাজবে না বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, সংস্কারকাজের জন্য সাময়িকভাবে ২০২১ সাল পর্যন্ত ‘বিগ বেন’ ঘড়িটি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। বন্ধ হওয়ার পূর্বে গত সোমবার দুপুরে এলিজাবেথ টাওয়ার হতে শেষবারের মতো ঘড়িটির ঘণ্টাধ্বনি শোনা যায়।

ওই প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, সংস্কারকাজের জন্য ১৯৮৩ হতে ১৯৮৫ সাল পর্যন্ত ও ২০০৭ সালে ‘বিগ বেন’ ঘড়িটি বন্ধ রাখা হয়েছিল। তবে সেটি করা হয়েছিল সাময়িকভাবে।

এদিকে যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্ট কর্তৃপক্ষ বলেছে, সংস্কারের জন্য ‘বিগ বেন’ আপাতত বন্ধ রাখার বিকল্প কোনো উপায় নেই। তবে নিউইয়ারসহ গুরুত্বপূর্ণ কিছু অনুষ্ঠানের সময় ঘড়িটি হতে এই ঘণ্টাধ্বনি শোনা যাবার ব্যবস্থা রাখা হবে।

‘বিগ বেন’ এর রক্ষণাবেক্ষণকারী স্টিভ জাগস বলেছেন, ‘বিগ বেন’র যেমন সংস্কার করতে হবে, ঠিক তেমনি এলিজাবেথ টাওয়ারেরও সংস্কার করা প্রয়োজন। সে কারণে প্রায় দীর্ঘ সময় ঘড়িটি বন্ধ রাখা হবে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, সংস্কার প্রকল্পের প্রধান প্রকৌশলী অ্যাডাম ওয়াটরোবস্কি বলেছেন, ভবনটি আরও আধুনিক করার পরিকল্পনা রয়েছে। এতে লিফট, প্রসাধন কক্ষ এবং রান্নাঘরও রাখা হবে। বিগ বেনের প্রতিটি খণ্ডই পরিষ্কার এবং সংস্কার করা হবে।

উল্লেখ্য, লন্ডনের এলিজাবেথ টাওয়ারে ১৫৭ বছর ধরে ‘বিগ বেন’ ঘণ্টাধ্বনি দিয়ে আসছে। ৯৬ মিটার লম্বা এই টাওয়ারে স্থাপিত ঘড়িটির ওজন হলো ১৩ দশমিক ৭ টন। আগেই বলা হয়েছিল, ‘বিগ বেন’ সংস্কারে ২ কোটি ৯০ লাখ পাউন্ড ব্যয় হবে।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...