২০১৭ সালে চলচ্চিত্র ও সঙ্গীত জগতের যারা চলে গেলেন

আমাদের জীবন হতে পাওয়া না পাওয়ার আরও একটি বছর চলে যাচ্ছে। বছরের শেষ সময় ও নতুন বছরের দ্বারপ্রান্তে এসে আমরা ঠেকেছি

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ২০১৭ সালে চলচ্চিত্র ও সঙ্গীত জগতের যারা চলে গেলেন তাদের তালিকা দেখে নিন। গুণি এইসব চলচ্চিত্র অভিনেতা ও সঙ্গীত জগতের নক্ষত্র ভক্তদের কাঁদিয়ে চলে গেলেন।

আমাদের জীবন হতে পাওয়া না পাওয়ার আরও একটি বছর চলে যাচ্ছে। বছরের শেষ সময় ও নতুন বছরের দ্বারপ্রান্তে এসে আমরা ঠেকেছি। নতুনকে বরণের পূর্বে অতীত হয়ে আসে অনুপ্রেরণার। আবার অতীত ভাসিয়ে যায় শোকের মিছিলও। চলচ্চিত্র, সঙ্গীতসহ শোবিজের নানা অঙ্গনের বহু গুণী-প্রিয় মানুষরা পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে চলে গেলেন। তাদের হারানোর শোক বুকে নিয়েই নতুন বছর শুরুর যাত্রা হবে আমাদের।

নায়করাজ রাজ্জাক

নায়করাজ রাজ্জাক বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন দীর্ঘদিন ধরেই। অবশেষে চলতি বছরের ২১ আগস্ট শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন এই কিংবদন্তি চলচ্চিত্র অভিনেতা নায়করাজ রাজ্জাক। রাজধানীর ইউনাইটেড চিকিৎসাধীন অবস্থা শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন নায়করাজ রাজ্জাক। নায়করাজ রাজ্জাকের মৃত্যুর খবরে গোটা চলচ্চিত্রপাড়ায় শোকের ছায়া নেমে আসে। ২৩ আগস্ট দুপুরে তাকে বনানী গোরস্তানে দাফন করা হয়।

লাকী আখন্দ

‘আগে যদি জানতাম’ খ্যাত সুরকার, সংগীত পরিচালক এবং গায়ক লাকী আখন্দ চলতি বছরের ২১ এপ্রিল মারা যান। দীর্ঘদিন ধরেই দুরারোগ্য ব্যাধি ক্যান্সার রোগে ভুগছিলেন তিনি। ওইদিন সন্ধ্যা ৭টায় রাজধানীর আরমানিটোলায় নিজ বাসভবনে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন লাকি আকন্দ। পরে দ্রুত স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আউটডোরে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন। লাকী আখন্দ একজন মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। মিরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবী গোরস্তানে তাঁকে দাফন করা হয় ।

আবদুল জব্বার

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৩০ আগস্ট মারা যান সঙ্গীত শিল্পী আবদুল জব্বার। তার বয়স হয়েছিল ৭৯ বছর। আব্দুল জব্বার কিডনি, হার্ট, প্রস্টেটসহ বার্ধক্যজনিত নানা জটিলতায় ভুগছিলেন। পরদিন ৩১ আগস্ট বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত হন আব্দুল জব্বার।

বারী সিদ্দিকী

উপমহাদেশের প্রখ্যাত সুরকার, গীতিকার, বংশীবাদক এবং সংগীতশিল্পী বারী সিদ্দিকী রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান ২৪ নভেম্বর। দুটি কিডনিই অকার্যকর ছিল তাঁর। বহুমূত্র রোগেও ভুগছিলেন তিনি। পরদিন বারি সিদ্দিকীর বাউল বাড়ি নেত্রকোনার চল্লিশা বাজারে তাঁকে দাফন করা হয়।

মিজু আহমেদ

চলতি বছরের ২৭ মার্চ মাসে শুটিং করতে ঢাকা হতে দিনাজপুর যাত্রা পথে ট্রেনে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যান চলচ্চিত্রের এই গুণী অভিনেতা মিজু আহমেদ। তিনি আহমেদ ইলিয়াস ভূঁইয়ার পরিচালনায় ‘মানুষ কেন অমানুষ’ নামের একটি ছবির শুটিং করতে যাচ্ছিলেন। পরদিন তার মরদেহ কুষ্টিয়া জেলার কোটপাড়ায় নিজ গ্রামে দাফন করা হয়।

নাজমুল হুদা বাচ্চু

চলচ্চিত্র এবং নাটকের প্রবীণ অভিনেতা নাজমুল হুদা বাচ্চু চলতি বছরের ২৮ জুন মারা গেছেন। নাজমুল হুদা বাচ্চু বহু চলচ্চিত্র ও নাটকে অভিনয় করেছেন। তার হাত ধরেই অভিনয় শুরু করেছিলেন বুলবুল আহমেদ, উজ্জ্বলের মতো অনেক চলচ্চিত্র তারকারা।

আনিসুল হক

বছরের শেষদিকে শোকের সাগরে ভাসিয়ে যান নন্দিত উপস্থাপক, সংস্কৃতি অঙ্গনের সুধীজন ঢাকা উত্তর সিটি মেয়র আনিসুল হক। ব্যবসায়ী এই মানুষটি চিরকাল সংস্কৃতির চর্চার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। তিনি শেষকালে রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েন, ঢাকা উত্তরের মেয়র নির্বাচিত হয়ে তুমুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেন। ৩০ নভেম্বর লন্ডনের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...