দুর্ঘটনায় পতিত হলে মাথার হেলমেটই ডাকবে অ্যাম্বুলেন্স!

হেলমেট শুধু প্রাথমিকভাবে আরোহীকে রক্ষাই করবে না, দুর্ঘটনায় পড়লে আরও কিছু গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বও পালন করবে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ কখনও দুর্ঘটনায় পতিত হলে মাথার হেলমেটই ডাকবে অ্যাম্বুলেন্স! এমন একটি হেলমেট আবিষ্কার করা হয়েছে।

এই বিশেষ হেলমেটকে বলা হচ্ছে স্মার্ট হেলমেট! এই স্মার্ট হেলমেট তৈরি করে তাক লাগিয়ে দিয়েছে পাকিস্তান।

দেশটির রাস্তায় মোটরবাইক দুর্ঘটনার কথা হরহামেশায় শোনা যায়। বাইকআরোহীদের হেলমেট পরা বাধ্যতামূলক করলেও পুলিশ এবং প্রশাসনের চোখ এড়িয়ে বিনা হেলমেটে অনেকেই যাতায়াত করেন। কানে ফোন ও বিনা হেলমেটে দুর্ঘটনার সম্ভাবনা আরও বাড়ে বেশি। দুর্ঘটনার কবলে পড়লে হেলমেট অনেকটাই রক্ষাকবচের কাজ করে থাকে। তা জানা সত্ত্বেও অনেকেই সচেতনভাবেই হেলমেট পরেন না।

তবে এবার হেলমেট শুধু প্রাথমিকভাবে আরোহীকে রক্ষাই করবে না, দুর্ঘটনায় পড়লে আরও কিছু গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বও পালন করবে। নিজে থেকেই অ্যাম্বুলেন্স ডেকে আনতে পারে এই বিশেষ হেলমেট।

পাকিস্তান তৈরি করেছে এই স্মার্ট হেলমেট। দেখতে বাকি পাঁচটা হেলমেটের মতো এই হেলমেটের পোশাকি নাম হেলি। তবে অন্য পাঁচটা হেলমেটের থেকে অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ কাজ করে এটি। কারণ প্রযুক্তিগতভাবে অনেক এগিয়ে রয়েছে। যারা নতুন মোটরবাইক চালাচ্ছেন, তাদের জন্য এই স্মার্ট হেলমেট আদর্শ জিনিস। কারণ এতে রয়েছে স্পিকার, মাইক্রোফোন, ব্লুটুথ রিসিভার, জিপিএস ট্র্যাকার ও একটি হার্ট রেট মনিটারও।

অর্থাৎ ফোন এলে পৃথক করে কানে যেমন মোবাইল ধরার প্রয়োজন নেই, ঠিক তেমনই রাস্তা হারিয়ে ফেলার সমস্যাও নেই। শুধু এখানেই শেষ নয়, হেলমেটের মাথায় লাগানো রয়েছে একটি ক্যামেরা ও দুটি ইন্ডিকেটরও। অর্থাৎ এই হেলমেট মাথায় চাপালে রাস্তার দিক পরিবর্তনের সময় পৃথক করে ইন্ডিকেটর অন করারও প্রয়োজন হবে না। সেইসঙ্গে দুর্ঘটনায় পড়লে হেলির এসওএস মোডের মাধ্যমে সরাসরি ফোন চলে যাবে পরিবার ও অ্যাম্বুল্যান্সে। তবে যদি মনে করেন যে, এই ফোনের জন্য ইন্টারনেট প্রয়োজন, তাহলে আপনি ভুল ভাবছেন।

মাত্র ৩০০০ টাকার বিনিময়েই হেলি মাথায় তুলতে পারবেন আরোহীরা। এক হেলমেটে এতো গুণের কথা ভাবতে অবাক লাগতে পারে আপনার কাছে। তবে তার কীর্তি যে বাইক সফরকে আরও মসৃণ এবং সুরক্ষিত রাখবে তা নিয়ে কোনও রকম সন্দেহ নেই বিশেষজ্ঞদের।

Advertisements
Loading...