এক রহস্যময় পাথর যার নাকি প্রাণ আছে: চলাফেরাও করতে পারে! [ভিডিও]

পাথরগুলোর পানির প্রতি একটা বিশেষ আকর্ষণ রয়েছে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ এক রহস্যময় পাথরের খোঁজ পাওয়া গেছে। যে পাথরের নাকি প্রাণও আছে। আবার সে চলাফেরাও করতে পারে! সত্যিই এই রহস্যময় পাথর পৃথিবীর কোথায় রয়েছে? জানতে হলে পড়ুন ও ভিডিওটি দেখুন।

পাথরের যে প্রাণ নেই সেটি আমাদের সকলেরই জানা। শক্ত পাথর যে কখনও কখনও আয়তনে বৃদ্ধি পায় না সেটিও বিজ্ঞানীরা প্রমাণ করে ছেড়েছেন অনেক আগেই। তবে রোমানিয়ায় এক ধরনের রহস্যময় পাথর রয়েছে, যাদের সম্পর্কে খোদ বিজ্ঞানীরাও কোনো ব্যাখ্যা এখন পর্যন্ত খুঁজে পাননি। এসব পাথর পৃথিবীর কিনা তা নিয়েও কারও কারও মনে সংশয় রয়েছে।

জানা গেছে, ইউরোপের বলকান অঞ্চলের দেশটিতে থাকা ওইসব পাথর সময়ের সঙ্গে সঙ্গে আকারেও নাকি বৃদ্ধি পায়। পাথরের উপর নিয়মিত পানি বা অতিবৃষ্টি হলে সেগুলো দ্রুতই নাকি বৃদ্ধি পেতে থাকে! রহস্য শুধু এখানেই শেষ নয়, রহস্যময়ভাবে ওইসব পাথর এক স্থান হতে অন্য স্থানেও চলাচলও করে!

এ বিষয়ে বিজ্ঞানীরা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখেছেন যে, পাথরগুলোর পানির প্রতি একটা বিশেষ আকর্ষণ রয়েছে। তবে নির্জীব বস্তুর কেনো পানির প্রতি এতো আকর্ষণ? আধুনিক বিজ্ঞানও এই সম্পর্কে সম্পূর্ণ নিরব রয়েছে।

রোমানিয়ার স্থানীয়রা অবশ্য বিশেষ পাথরের এইসব গুণগুলো নিয়ে খুব একটা মাথা ঘামান না। রোমানিয়ার এসব পাথরকে তারা পৃথিবীর একমাত্র জীবন্ত পাথর বলে মনে করে। তবে বিজ্ঞানীরা পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালিয়েছেন পাথরগুলোকে নিয়ে। তবে জীবন্ত পাথরের কোনো ব্যাখ্যা এখনও তাদের কাছে মেলেনি।

এইসব রহস্যময় পাথরগুলোর বৃদ্ধি অনেকটাই চোখে পড়ার মতো। পুরো পাথরগুলোই যে আকারে বাড়ে তাও নয়, এর শরীরের কোনো কোনো স্থান দিয়ে বাড়তি অংশও বৃদ্ধি পায়। স্থানীয়রা এসব পাথরকে ‘ট্রোভেন্টস’ নামে ডাকেন। যার অর্থ হলো সিমেন্টের বালি।

বিজ্ঞানীরাও ওইসব রহস্যময় পাথর নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখেছেন। এর ভেতরে অদ্ভূত শক্ত বালুর মতো পদার্থ ছাড়া কিছুই নেই। তবে সেসব পাথরে আবার স্তর রয়েছে, যা অন্য সাধারণ পাথরে কখনও দেখা যায় না।

অবশ্য এই রহস্যময় পাথর রোমানিয়ার সব স্থানে পাওয়া যায় না। দেশটির প্রত্যন্ত গ্রাম কোসটেসতি’তেই একমাত্র এমন অদ্ভুত পাথরের সন্ধান পাওয়া গেছে। যে কারণে কেও কেও দাবি করেছেন, এসব পাথর পৃথিবীর বাইরে থেকে এসেছে। এর উপাদানে হয়তোবা মহাজাগতিক উপাদানও রয়েছে, যার সঙ্গে আধুনিক বিজ্ঞান এখন পর্যন্ত পরিচিত নয়। তবে হয়তো বিজ্ঞানীরা একদিন এর প্রকৃত রহস্য উন্মোচর করবেন।

দেখুন ভিডিওটি

Advertisements
Loading...