The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

৩ জুন হতে নতুন নোট বিলি: সাধারণ গ্রাহকরা কি পাবেন এইসব নোট?

১০, ২০, ৫০ এবং ১০০ টাকা মূল্যমানের নতুন নোট (বান্ডিল) বিশেষ ব্যবস্থায় বিনিময় করা হবে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ঈদ আসন্ন। আর ঈদ এলে ব্যাংকগুলোতে নতুন নোট খোঁজা শুরু হয়। এবার বাংলাদেশ ব্যাংকসহ তফসিলি ব্যাংকগুলোতে নতুন নোট পাওয়া যাবে ৩ জুন হতে। কিন্তু সাধারণ গ্রাহকরা কি পাবেন এইসব নোট?

বাংলাদেশ ব্যাংক ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে আগামী ৩ জুন হতে নতুন নোট বিনিময় শুরু করবে। সাপ্তাহিক ও সরকারি ছুটির দিন বাদে বিতরণ চলবে ১৪ জুন পর্যন্ত।

জানা গেছে, বাংলাদেশ ব্যাংকের বিভিন্ন অফিসের কাউন্টারে নতুন নোট বিনিময় করা হবে। এছাড়াও ঢাকা শহরের বিভিন্ন বাণিজ্যিক ব্যাংকের শাখা থেকেও ১০, ২০, ৫০ এবং ১০০ টাকা মূল্যমানের নতুন নোট (বান্ডিল) বিশেষ ব্যবস্থায় বিনিময় করা হবে। তবে বলা হয়েছে যে, একই ব্যক্তি একবারের বেশি নতুন নোট নিতে পারবেন না। নোট নেওয়ার সময় কেও ইচ্ছা করলে কাউন্টার হতে পরিমাণ অনুযায়ী যে কোনো মূল্যমানের ধাতব মুদ্রাও গ্রহণ করতে পারবেন।

গত ২৭ মে বাংলাদেশ ব্যাংকের জনসংযোগ বিভাগ এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে গ্রাহকদের মধ্যে নোট বিনিময়ে নিযুক্ত ব্যাংকগুলোর তালিকাও প্রকাশ করেছে।

তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ব্যাংকগুলোতে গিয়ে নতুন নোট খুঁজে পাওয়া যায় না। কখনও তারা বলেন, এখনও আসেনি। আবার কখনও বলেন, শেষ হয়ে গেছে। কোনো তফসিলি বাণিজ্যিক ব্যাংকে গিয়ে নতুন নোট পাওয়া যায় না। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে ব্যাংকের কর্মকর্তা-কর্মচারি কিংবা বিশেষ পরিচিতরাই এইসব নতুন নোট পেয়ে থাকেন। সাধারণ গ্রাহকরা এইসব নোট কখনও পান না বলে অভিযোগ রয়েছে।

ঢাকার যেসব ব্যাংকের শাখায় নতুন নোট বিনিময় করা যাবে সেগুলো হলো:

১। ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড, যাত্রাবাড়ী শাখা।
২। জনতা ব্যাংক লিমিটেড, আব্দুল গণি রোড করপোরেট শাখা।
৩। অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড, এলিফ্যান্ট রোড শাখা।
৪। দি সিটি ব্যাংক লিমিটেড, মিরপুর শাখা।
৫। সাউথইস্ট ব্যাংক লিমিটেড, কারওয়ান বাজার শাখা।
৬। সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, বসুন্ধরা সিটি (পান্থপথ) শাখা।
৭। উত্তরা ব্যাংক লিমিটেড, চকবাজার শাখা।
৮। সোনালী ব্যাংক লিমিটেড, রমনা করপোরেট শাখা।
৯। ঢাকা ব্যাংক লিমিটেড, উত্তরা শাখা।
১০। আইএফআইসি ব্যাংক লিমিটেড, গুলশান শাখা।
১১। রূপালী ব্যাংক লিমিটেড, মহাখালী শাখা।
১২। ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, মোহাম্মদপুর শাখা।
১৩। জনতা ব্যাংক লিমিটেড, রাজারবাগ শাখা।
১৪। পূবালী ব্যাংক লিমিটেড, সদরঘাট শাখা।
১৫। শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, মালিবাগ শাখা।
১৬। ওয়ান ব্যাংক লিমিটেড, বাসাবো শাখা।
১৭। ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড, শ্যামলী শাখা।
১৮। ডাচ-বাংলা ব্যাংক লিমিটেড, এসএমই অ্যান্ড এগ্রিকালচার শাখা, দক্ষিণখান।
১৯। মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিটেড, বনানী শাখা।
২০। ব্যাংক এশিয়া লিমিটেড, ধানমন্ডি শাখা।

Loading...