এখন থেকে ২৫ ঘণ্টায় হবে দিন!

কলম্বিয়া ইউনিভার্সিটি ও ইউনিভার্সিটি অব উইসকনসিন ম্যাডিসন এর গবেষকরা এমন তথ্য দিয়েছেন

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ আমরা সকলেই জানি ২৪ ঘণ্টায় দিন হয়। কিন্তু এবার এর ব্যতিক্রমি খবর হলো এখন থেকে নাকি ২৫ ঘণ্টায় হবে দিন! আসলেও কী তাই? আসুন জেনে নিই বিষয়টি।

২৫ ঘণ্টার দিন হওয়ার খবরটি সুখবর তাদের জন্য যাদের সংসার, অফিস, বন্ধুবান্ধব- সব কাজ করে নিজের জন্য আর হাতে কোনে রকম সময় থাকে না। আবার কখনও কখনও সারাদিনেও পুরোটা কাজ শেষ করা সম্ভব হয় না। মাঝে মধ্যে আমরা বলে ফেলি দিন কেনো এতো ছোট হলো। তবে ভবিষ্যতে তার কিছুটা সমাধান হয়তো মিলতে চলেছে বলে আভাস পাওয়া গেছে।

আমরা সকলেই জানি ২৪ ঘণ্টায় ১ দিন হয়ে থাকে। কিন্তু যদি কখনও শোনেন ২৫ ঘণ্টায় দিন! তাহলে কেমন হবে? বিষয়টি আপনার আমার জন্য বিস্ময়ের কারণ হলেও সত্যিই আগামী দিনগুলোতে এমনটাই নাকি হতে চলেছে। বাড়ছে দিনের মাপরেখা! ২৪ ঘণ্টায় নয়, তখন ১ দিন হবে ২৫ ঘণ্টায়! সম্প্রতি এক গবেষণায় উঠে এসেছে এমন বিস্ময়কর তথ্য। তথ্য- ইয়াহু নিউজ এর।

খবরে বলা হয়েছে, কলম্বিয়া ইউনিভার্সিটি ও ইউনিভার্সিটি অব উইসকনসিন ম্যাডিসন এর গবেষকরা এমন তথ্য দিয়েছেন।

যুক্তি হিসেবে গবেষকরা বলেছেন, ১০০ কোটি বছর পূর্বে পৃথিবীতে দিনের মাপ ছিল মাত্র ১৮ ঘণ্টা। ক্রমেই সেই মাপ বেড়ে বর্তমানে পৌঁছেছে ২৪ ঘণ্টায়। ঠিক সেই মতোই আগামীতে দিন হতে চলেছে ২৫ ঘণ্টায়।

ভূবিজ্ঞানীরা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোনায় এই বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালিয়ে এমন সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন। ন্যাশনাল অ্যাকাডেমি অব সায়েন্সেস-এ এই তথ্য প্রকাশিত হওয়া মাত্রই সারাবিশ্বে চাঞ্চল্য ফেলে দিয়েছে এই গবেষণাটি।

বিষয়টি নিয়ে ইউনিভার্সিটি অব উইসকনসিন ম্যাডিসন-এর ভূবিজ্ঞানের অধ্যাপক স্টিফেন মেয়ার্স বলেছেন, সময় যতোই গড়াচ্ছে চাঁদ পৃথিবী হতে ক্রমেই দূরে সরে যাচ্ছে। এতে করে প্রভাবিত হচ্ছে পৃথিবীর আহ্নিক গতি। যে কারণে নিজের চারদিকে একবার ঘুরতে বেশি সময় নিচ্ছে পৃথিবী। যার ফলশ্রুতিতে দিন আরও লম্বা হয়ে যাচ্ছে। তিনি আরও বলেন, অদূরভবিষ্যতে ২৫ ঘণ্টাতেই ১ দিন হতে চলেছে। বাড়ছে পৃথিবী এবং চাঁদের দূরত্বও।

উল্লেখ্য, চাঁদ হলো পৃথিবীর একমাত্র প্রাকৃতিক উপগ্রহ এবং সৌর জগতের পঞ্চম বৃহত্তম উপগ্রহ এটি। পৃথিবীর কেন্দ্র হতে চাঁদের কেন্দ্রের গড় দূরত্ব হলো ৩৮৪,৩৯৯ কিলোমিটার ( প্রায় ২৩৮,৮৫৫ মাইল) যা পৃথিবীর ব্যাসের প্রায় ৩০ গুণ। চাঁদের ব্যাস ৩,৪৭৪.২০৬ কিলোমিটার (২,১৫৯ মাইল) যা পৃথিবীর ব্যাসের এক-চতুর্থাংশের চেয়ে সামান্য কিছু বেশি।

এর অর্থ দাঁড়াচ্ছে যে, চাঁদের আয়তন পৃথিবীর আয়তনের ৫০ ভাগের ১ ভাগ। আর এর পৃষ্ঠে অভিকর্ষ বল পৃথিবী পৃষ্ঠে অভিকর্ষ বলের এক-ষষ্ঠাংশ। পৃথিবী পৃষ্ঠে কারও ওজন যদি ১২০ পাউন্ড হয় তাহলে চাঁদের পৃষ্ঠে তার ওজন মাত্র ২০ পাউন্ড হবে। এটি প্রতি ২৭.৩২১ দিনে পৃথিবীর চারদিকে একটি পূর্ণ আবর্তন সম্পন্ন করে থাকে। প্রতি ২৯.৫ দিন পরপর চন্দ্র কলা ফিরে আসে অর্থাৎ একই কাজ আবারও ঘটে। পৃথিবী-চাঁদ-সূর্য তন্ত্রের জ্যামিতিতে পর্যায়ক্রমিক পরিবর্তনের জন্যই চন্দ্র কলার এই পর্যানুক্রমিক আবর্তন ঘটে।

Advertisements
Loading...