মিয়ানমারের নাগরিকের শিরশ্ছেদ করা হলো সৌদিতে

শিরশ্ছেদ করার পর ওই ব্যক্তিকে ‘ক্রুশবিদ্ধের’ মতো ঝুলিয়ে রাখার সিদ্ধান্তটি দেশটির সুপ্রিম কোর্ট ও রাজা সালমান অনুমোদনও করেছেন

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ এক নারীকে হত্যা ও অন্যান্য অপরাধের জন্য মিয়ানমারের এক নাগরিকের শিরশ্ছেদ করে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে সৌদি আরব।

সৌদি আরবে এক নারীকে হত্যা ও অন্যান্য অপরাধের কারণে মিয়ানমারের এক নাগরিকের শিরশ্ছেদ করে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করলো সৌদি আরব। সেইসঙ্গে তাঁর লাশ লটকে জনসমক্ষে প্রদর্শনও করা হয়।

জানা যায়, ইলিয়াস আবুলকালাম জামালেদ্দিন নামের মিয়ানমারের অভিযুক্ত ব্যক্তি মক্কায় বসবাসরত অপর এক মিয়ানমার নাগরিকের বাড়িতে গুলি চালাতে চালাতে প্রবেশ করে। সেখানে এক নারীকে ছুরিকাহত করলে ওই নারীর মৃত্যু হয়। জামালেদ্দিনের বিরুদ্ধে ওই বাড়িতে ডাকাতি ছাড়াও পাশের আরেকটি বাড়িতে ডাকাতির অভিযোগও আনা হয়েছিল। সেইসঙ্গে ধর্ষণের চেষ্টা ও বন্দুকের সঙ্গে গুলি চুরি করার অভিযোগও উঠেছিলো তার বিরুদ্ধে।

সৌদি নিউজ এজেন্সিতে প্রকাশিত এক খবরে বলা হয়েছে, শিরশ্ছেদ করার পর ওই ব্যক্তিকে ‘ক্রুশবিদ্ধের’ মতো ঝুলিয়ে রাখার সিদ্ধান্তটি দেশটির সুপ্রিম কোর্ট ও রাজা সালমান অনুমোদনও করেছেন। তার বিরুদ্ধে উত্থাপিত সকল অভিযোগগুলো আদালতে প্রমাণ হওয়ায় তাকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়।

হিন্দুস্তান টাইমস বলেছে, সৌদি আরব হলো বিশ্বের সবচেয়ে বেশি মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা দেশগুলোর একটি। সাধারণত দেশটিতে শিরশ্ছেদ করা হয়ে থাকে। তবে এবারের ঘটনায় দোষী ব্যক্তির শিরশ্ছেদ করার পর তার দেহকে ক্রুশবিদ্ধের মতো দুই হাত দুই দিকে প্রসারিত অবস্থায় উন্মুক্ত স্থানে জনসাধারণের দেখার জন্য ঝুলিয়ে রাখা হয়।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...