যে কৌশলগুলো আপনার শিশুকে খাবারের প্রতি আগ্রহী করে তুলবে

ঠিক মত না খাওয়ার কারণে শিশুদের মানসিক বিকাশ ঘটায় ব্যাঘাত সৃষ্টি হয়

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ আজকের শিশু আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। তাই ভবিষ্যতের যোগ্য করে তাদের গড়ে তুলতে হলে প্রতিদিন পর্যাপ্ত সুষম খাবার খাওয়াতে হবে। তবে বর্তমানে বেশিরভাগ মায়েদের অভিযোগ, তাদের শিশুরা ঠিক মত খেতে চায় না বা খাবারের প্রতি আগ্রহ নেই। আর এই সমস্যার কারণে শিশুদের মানসিক বিকাশ ঘটায় ব্যাঘাত সৃষ্টি হয়। সেই সাথে পিতা-মাতাও তাদের সন্তানকে নিয়ে বেশ চিন্তায় থাকেন।

আজ আমরা আলোচনা করবো শিশুদের খাবারের প্রতি অরুচির কারণ এবং তার প্রতিকার নিয়ে।

১। সাধারনত শিশুরা প্রতিদিন এক ধরনের খাবার খেতে পছন্দ করে না। তাই আমাদের উচিৎ সেই খাবারের রুপ পরিবর্তন করে
খাওয়ানো। যেমন, প্রতিদিন একটি শিশু হয়ত ডিম সেদ্ধ খেতে পছন্দ করছে না। তখন আপনি তাকে ডিম ভাজি কর্‌ পুডিং বা
অন্য কোন উপায়ে রান্না করে খাওয়াতে পারেন। তাহলে সেই নতুন খাবারের প্রতি তাদের রুচি বেড়ে যাবে।

২। কখনই তাকে খাবারের প্রতি জোর করবেন না বা ভয় দেখিয়ে খাওয়াবেন না। তাহলে সেই খাবারের প্রতি পরবর্তীতে তার আগ্রহ
হারিয়ে যাবে। তাকে খাবারের প্রতি মনযোগ আকর্ষনের চেষ্টা করুন। খাবারের বিভিন্ন উপকারিতা সম্পর্কে তাকে বোঝানোর চেষ্টা
করুন এবং খাবার না খেলে কি কি সমস্যা হতে পারে সেই বিষয়ে জ্ঞান দিতে পারেন।

৩। তার পছন্দের শাক-সবজি এবং ফল ক্রয় করুন। কিছু খাবার শিশুদের কাছে প্রিয় হয়ে যায়। তাই বাজার করার সময় তার পছন্দের
খাবার গুলো ক্রয় করার চেষ্টা করুন।

৪। চিপস, চকলেট, জুস ইত্যাদি খাওয়ার কারণে শিশুদের স্বাভাবিক খাবারের প্রতি রুচি হারিয়ে যায়। তাই সর্বদা চেষ্টা করবেন এই
জাতীয় খাবার থেকে তাদের দূরে রাখতে।

৫। ভাত খাওয়ার আগে তাদের অন্য কিছু খেতে দিবেন না। তাহলে ভাত জাতীয় খাবারের প্রতি তখন রুচি থাকবে না।

৬। অনেক সময় খাবার পরিবেশনে ভিন্নতা আনলেও কাজ হয়। রঙিন পাত্রে খাবার পরিবেশন করুন। খাবার টেবিলকে সুন্দর ও
আকর্ষণীয় করে তুলুন।

৭। শিশু যদি খুব অন্যমনস্ক থাকে, তাহলে খিদে নষ্ট হয়ে যায়। ধরুন, আপনার শিশুর বন্ধুরা সবাই বাইরে খেলাধুলা করছে আপনি
জোর করে বাড়ির মধ্যে রেখে তাকে খাওয়ানোর চেষ্টা করছেন, তাহলে কিন্তু আপনার শিশুটি একেবারেই খেতে চাইবে না। তাদের
টিভি দেখার প্রবণতা কমিয়ে পর্যাপ্ত খেলার ব্যবস্থা করুন। কারণ খেলা করলে শিশুদের খিদে বাড়বে এবং খাবারের প্রতি আগ্রহ সৃষ্টি
হবে।

৮। শিশুদের নিজ হাতে খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন। বাবা-মায়ের হাতে খেতে খেতে তারা খেলাধুলা করে, ফলে খাওয়ার প্রতি বেশি
মনযোগ থাকে না। কিন্তু নিজ হাতে খাওয়া অভ্যাস হয়ে গেলে খাওয়ার প্রতি তার আগ্রহ বেড়ে যাবে এবং নিজের মত করে খেতে
পারবে। অনেক সময় দেখা যায় সে হয়ত অল্প করে খাবার মুখে নিতে চায় কিন্তু আমরা বেশি করে খাবার মুখে দিই। যার ফল
স্বরুপ সেই খাবার সে ফেলে দেয়। অথচ নিজ হাতে খাওয়ার অভ্যাস হলে তার ইচ্ছে মত খাবার মুখে নিতে পারবে।

৯। নানা সমস্যার কারণে অনেক সময় শিশুরা খাবারের প্রতি আগ্রহ হারিয়ে ফেলে। বিশেষ করে পেটে কৃমি, মৃদু জ্বর, মানসিক অবস্বাদ ইত্যাদি সমস্যার কারণে তাদের খাবার প্রতি রুচি হারিয়ে যায়। কারণ শিশুরা তাদের শারিরীক সমস্যা সম্পর্কে ঠিক মত বলতে পারে না। তাই শিশুদের নিয়মিত স্বাস্থ পরিক্ষা করুন।

Advertisements
Loading...