The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

এবার ফেসবুক নিয়ে এলো ভিডিও এডিটিং অ্যাপস

প্রতিটি মানুষের নিজস্ব পছন্দ থাকে। এই বিষয়টিকে মাথায় রেখেই তৈরি করা হয়েছে নতুন এই অ্যাপটি

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক তাদের নানা সংযোজনের মাধ্যমে গ্রাহকদের কাছে ক্রমেই আরও জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। গ্রাহকদের জন্য এবার ফেসবুক নিয়ে এলো ভিডিও এডিটিং অ্যাপস।

এবার ফেসবুক নিয়ে এলো ভিডিও এডিটিং অ্যাপস 1

জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক তাদের নানা সংযোজনের মাধ্যমে গ্রাহকদের কাছে ক্রমেই আরও জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। গ্রাহকদের জন্য এবার ফেসবুক নিয়ে এলো ভিডিও এডিটিং অ্যাপস।

অনেক সময় দেখা যায় ছোট ছোট ভিডিও তৈরি করার শখ রয়েছে অনেকেরই। এবার গ্রাহকদের সেই শখ মেটাবে ফেসবুক। ভিডিও অ্যাপস “Lasso” লঞ্চ করলো জনপ্রিয় এই স্যোশাল নেটওয়ার্কিং সাইট (ফেসবুক)। সেখানে ইউজাররা নিজের তৈরি ভিডিও শেয়ার করার সুযোগও পাবেন। শুধুমাত্র শেয়ারই নয়, ভিডিওটিকে আকর্ষণীয় করে বানাতে যোগ করা যাবে ফিল্টার ও স্পেশাল এফেক্টস। ফেসবুক প্রডাক্ট ম্যানেজর অ্যান্ডি হুয়াং ট্যুইটারের মাধ্যমে জানিয়েছেন, ইতিমধ্যেই ফেসবুকের নতুন শর্ট-ফর্ম ভিডিও অ্যাপটি ব্যবহার করা শুরু করেছে ইউএস-এর গ্রাহকরা।

প্রতিটি মানুষের নিজস্ব পছন্দ থাকে। এই বিষয়টিকে মাথায় রেখেই তৈরি করা হয়েছে নতুন এই অ্যাপটি। যেখানে থাকছে ভিডিও এডিটিং টুলসও। তাছাড়া ইউজার ভিডিওটিকে ইন্টারেস্টিং বানাতে পছন্দের গান বা টেক্সট অ্যাডও করতে পারবেন। তবে অ্যাপটির লঞ্চ নিয়ে কোনো রকম প্রচার চালায়নি ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। বলা হচ্ছে, একপ্রকার চুপিসারেই এই নতুন অ্যাপটিকে লঞ্চ করা হয়েছে। অ্যাপটিতে শেয়ার করা সমস্ত ভিডিও ও প্রফাইলস পাবলিক থাকবে।

ইউটিউব-স্ন্যাপচ্যাটের মতো প্ল্যাটফর্মগুলিকে প্রতিযোগিতায় টেক্কা দিতে গিয়েই মূলত ফেসবুক এই অ্যাপ নিয়ে এসেছে বলে ধারনা করা হচ্ছে। এক তথ্যে জানা যায়, প্রায় ৬৯ শতাংশ ইউএস টিনএজার গ্রাহক স্ন্যাপচ্যাট ব্যবহার করে। আর ইন্সটাগ্রাম ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৭২ শতাংশের মতো। অপরদিকে প্রতিযোগিতায় সর্বাধিক এগিয়ে আছে ইউটিউব। ইউটিউব ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় ৮৫ শতাংশ। অ্যন্ড্রয়েড ও আইফোন, উভয় ইউজাররাই ফেসবুকের এই নতুন ভিডিও শেয়ারিং অ্যাপটি ব্যবহার করতে পারবেন। তবে বিশ্বের অন্যান্য দেশের ব্যবহারকারীরা ঠিক কবে পেতে যাচ্ছেন এই “Lasso” অ্যাপ সেই বিষয়টি এখনও অস্পষ্টই রয়ে গেছে। তবে গ্রাহকদের আশা নিশ্চয়ই ফেসবুক কর্তৃপক্ষ তাদেরকেও এই নতুন অ্যাপটি ব্যবহারের সুযোগ দেবেন।

উল্লেখ্য, বর্তমান সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর মধ্যে ফেসবুক শীর্ষে রয়েছে। সারাবিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশেও ফেসবুক একটি জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...