The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

প্রকাশ্যে আলিঙ্গন: প্রেমিক-প্রেমিকাকে বেত্রাঘাত!

সুমাত্রার এই দ্বীপে জুয়া, মদ্যপান, সমকামিতা এবং বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক রুখতে শরিয়াহ আইন বিদ্যমান রয়েছে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ প্রকাশ্যে জনসম্মুখে পরস্পরকে জড়িয়ে ধরে আলিঙ্গন করার অপরাধে ইন্দোনেশিয়ার আচেহ প্রদেশের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক প্রেমিক-প্রেমিকাকে ১৭ বার বেত্রাঘাত করা হয়েছে!

প্রকাশ্যে আলিঙ্গন: প্রেমিক-প্রেমিকাকে বেত্রাঘাত! 1

বৃহস্পতিবার আচেহ প্রদেশের এক মসজিদের সামনে তাদেরকে এই শাস্তি দেওয়া হয়। প্রকাশ্যে দোকানে ঘনিষ্ঠ হওয়ার দায়ে একই দিনে অন্য এক বয়স্ক জুটিকেও বেত্রাঘাত করা হয়।

দেশটির একটি সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, আচেহর এক মসজিদের সামনে ওই দুই তরুণ-তরুণীকে প্রথমে একটি উঁচু জায়গায় এনে দাঁড় করানো হয়। তারপর তাদেরকে বেত্রাঘাত করা হয়। এই দুই জুটির শাস্তি দেখতে মসজিদের সামনে জড়ো হন কয়েকশ’ মানুষ।

সুমাত্রার এই দ্বীপে জুয়া, মদ্যপান, সমকামিতা এবং বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক রুখতে শরিয়াহ আইন বিদ্যমান রয়েছে। এসব অপরাধের শাস্তি হলো প্রকাশ্যে বেত্রাঘাত।

ওই তরুণ-তরুণী প্রেমিক জুটি ছাড়াও ৪০ বছরের এক পুরুষ এবং ৩৫ বছরের এক নারীকেও প্রকাশ্যে বেত্রাঘাত করা হয়েছে। এই চারজনকে বেত্রাঘাত করার পূর্বে বেশ কিছুদিন জেলেও রাখা হয়।

ইন্দোনেশিয়ার আচেহ প্রদেশের ডেপুটি মেয়র জয়নুল আরিফিন বলেছেন যে, আচেহ প্রদেশের বাইরের যারা মনে করেন এই শাস্তি খুবই নিষ্ঠুরতম, তারা এসে দেখে যান আসলে এই শাস্তি আসলে অনেকটাই মানবিক।

উল্লেখ্য, গত বছরের ডিসেম্বরে অপ্রাপ্তবয়স্ক এক কিশোরীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করার কারণে এক ব্যক্তিকে ১০০ বার বেত্রাঘাত করা হয়। এই ঘটনায় দেশটির বিভিন্ন মানবাধিকার সংঘটন ইন্দোনেশিয়া সরকারের সমালোচনাও করেন।

Loading...