The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

আফগানিস্তানের আব্দুল রহমান মসজিদ

এই মসজিদটি ২০০১ সালে নির্মাণ শুরু করেছিলেন আফগানিস্তানের অত্যন্ত প্রভাবশালী ব্যবসায়ী হাজি আব্দুল রহমান

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ শুভ সকাল। শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৯ খৃস্টাব্দ, ১৩ বৈশাখ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২০ শাবান ১৪৪০ হিজরি। দি ঢাকা টাইমস্ -এর পক্ষ থেকে সকলকে শুভ সকাল। আজ যাদের জন্মদিন তাদের সকলকে জানাই জন্মদিনের শুভেচ্ছা- শুভ জন্মদিন।

আফগানিস্তানের আব্দুল রহমান মসজিদ 1

আব্দুল রহমান মসজিদ হলো আফগানিস্তানের সবচেয়ে বড় মসজিদ। আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল শহরের পোস্তুনিস্তান স্কয়ারের নিকটবর্তী, বাণিজ্যিক এলাকা ‘দেহ আফঘানান’-এ এই মসজিদটি অবস্থিত।

এই মসজিদটি ২০০১ সালে নির্মাণ শুরু করেছিলেন আফগানিস্তানের অত্যন্ত প্রভাবশালী ব্যবসায়ী হাজি আব্দুল রহমান। তাঁর নামানুসারে এই মসজিদের নামকরণ করা হয় ‘আব্দুল রহমান মসজিদ’।

এই মসজিদের প্রাথমিক নকশা করেছিলেন আফগানের খ্যাতিমান স্থপতি মির হাফিজুল্লাহ হাশিমী। তবে আমালতান্ত্রিক জটিলতায় এই মসজিদটির নির্মাণ কাজ বিলম্বিত হয়ে যায়। যে কারণে মসজিদটির নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হওয়ার পূর্বেই তিনি মৃত্যবরণ করেন। তারপর মসজিদটির নির্মাণকাজ শেষ করেন তাঁরই পুত্র। মসজিদটির প্রধান ও প্রায় সকল নির্মাণকাজ সম্পন্ন হয় ২০০৯ সালে। মসজিদটি রাষ্ট্রীয়ভাবে উদ্বোধন করা হয় ২০১২ সালে। উদ্বোধন করেন আফগান রাষ্ট্রপতি হামিদ কারজাই।

এই মসজিদটি মূলত ৩ তলা। প্রায় ৩.৫ একর জমির উপর এই মসজিদটি অবস্থিত। এর উপরে একটি বিশাল গম্বুজ রয়েছে। এই গম্বুজে সারিবদ্ধ আরও কিছু ছোট ছোট গম্বুজও রয়েছে। মসজিদ কমপ্লেক্সের মাঝ বরাবর দুটি মিনারও রয়েছে। এই মসজিদের এক তলা মহিলাদের নামাজ পড়ার জন্য সুনির্দিষ্ট। এই মসজিদে এক সঙ্গে প্রায় ১০ হাজার লোক নামাজ পড়তে পারেন। এই মসজিদ এলাকার ভিতরে একটি মাদ্রাসাও রয়েছে। এছাড়া প্রায় দেড় লাখ পুস্তক সম্বলিত একটি গ্রন্থাগারও রয়েছে দৃষ্টি নন্দন এই মসজিদে।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...