The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

বাংলাদেশে ওয়াইফাই পাওয়ার ব্যাংক

প্রযুক্তি আমাদের করেছে আধুনিক ও বিলাসী যার ফলে অতিব কষ্টের কাজ আমরা করতে পারি মুহূর্তের মধ্যে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ আমরা আধুনিক যুগের আশীর্বাদে পেয়েছি অনেক অগণিত ও অবিশ্বাস্য নানান সব যন্ত্র। পেয়েছি হাজারো আবিষ্কার দেখেছি লাখো উন্নয়ন। এমনই এক আবিষ্কার হলো ওয়াইফাই পাওয়ার ব্যাংক।

বাংলাদেশে ওয়াইফাই পাওয়ার ব্যাংক 1

আধুনিকায়নের এই বাতাস যেন আরো তীব্র থেকে তীব্রতর হচ্ছে ক্রমে ক্রমে। প্রযুক্তি আমাদের করেছে আধুনিক ও বিলাসী যার ফলে অতিব কষ্টের কাজ আমরা করতে পারি মুহূর্তের মধ্যে। এই হাজারো আবিষ্কার যা আমাদের দৈনন্দিন কাজে অবিচ্ছেদ্য তার মধ্যে অন্যতম হল মোবাইল ফোন বা স্মার্টফোন। বর্তমানে এই ফোনের কারনে আমাদের জীবন ব্যবস্থা যেন হয়েছে গতিময়। আমরা সমগ্র পৃথিবীকে যেন আমাদের হাতের তালুতে বন্দি করতে পারি এই ফোনের মাধ্যমে। আমরা আমাদের প্রিয়জনদের সাথে কথা বলার পাশাপাশি গাড়ির টিকিট পর্যন্ত কাটতে পারি এর দ্বারা।

এই মোবাইল ফোন ব্যবহারে বা এটিকে সচল রাখতে মোবাইলকে নির্দিষ্ট পরিমানে চার্জ প্রদান করতে হয় যা আমরা সকলেই জানি। সময়ে সাপেক্ষে ও ব্যবহারের অতিব বৃদ্ধির ফলে আমরা আমাদের সাধের মোবাইলটিকে সঠিক ভাবে চার্জ প্রদান করতে পারিনা। আর আমাদের এই চার্জ সমস্যা সমাধানে আমরা অতিরিক্ত পাওয়ার ব্যাংক ব্যবহার করে থেকি। পাওয়ার ব্যাংক এর মজুদ করা চার্জ তারের মাধ্যমে আমরা আমাদের মোবাইলে প্রদান করে থাকি। এই ক্ষেত্রে আমাদের অনেক ঝামেলা পহাতে হয়। তার সংযোগের ক্ষেত্রে আমাদের আলাদা করে USB ক্যাবল ব্যবহার করতে হয়। এই তার ব্যবহারের সময়ে এটি নষ্ট হয়ে যায়, এর ফলে চার্জে দেয়া অবস্থায় মোবাইলে কথা বলা, কাজ করা, বিভিন্ন কাজে বাধা সৃষ্টি হয়। সম্প্রতি এই সমস্যা সমাধানে বাংলাদেশে এই প্রথম আসছে ওয়াইফাই পাওয়ার ব্যাংক।

যুক্তরাষ্টের পাওয়ার সল্যুশন ব্র্যান্ড এনারজাইজারের এই তাক লাগানো প্রচেষ্টা আমাদের হাতে খুব শীঘ্রই তুলে দিবে বাংলাদেশের একটি সফল প্রতিষ্ঠান টেক রিপাবলিক লিমিটেড। এই প্রতিষ্ঠানের হাত ধরেই আমরা পেতে যাচ্ছি আন্তর্জাতিক ও মান সম্মত সকল পাওয়ার ব্যাংক এবং এর সাথে আমরা পাবো তারহীন উন্নত মানের ওয়াইফাই পাওয়ার ব্যাংক।

টেক রিপাবলিক ব্যবস্থাপনা পরিচালক এইচ এম ফয়েজ মোরশেদ তাইওয়ান থাকাকালীন সময় এনারজাইজার কোম্পানিটির আমাদের বাংলাদেশের বাজারে আসার আগ্রহ দেখতে পান। এর পাশাপাশি তিনি তাদের বিচিত্র সব পাওয়ার ব্যংক দেখে মুগ্ধ হন এবং এই ব্র্যান্ডের পাওয়ার ব্যাংক গুলকে আমাদের বাজারের অন্তর্ভুক্ত করার সিদ্ধান্তে আসেন। আমরা সকলেই জানি যে স্বাস্থ্যগত ঝুঁকি ও মোবাইল ফোন সুরক্ষার জন্য আমাদের অবশ্যই ভালো কোয়ালিটির ও উন্নত মানের চার্জার ব্যবহার করতে হয় যা আমরা এনারজাইজারের এই চার্জারের দ্বারা খুব সহজেই এসকল চাহিদা পুরন করতে পারবো। আশা করতে পারি আমাদের স্মার্টফোন, ট্যাব, আইফোন ইত্যাদি সকল ডিভাইস যা পাওয়ার ব্যাংক দ্বারা চার্জ করা হয়ে থাকে এইসকল ডিভাইসের জন্য এনারজাইজারের ম্যাক্স, হাইটেক ও আল্টিমেট সিরিজের পাওয়ার ব্যাংকটি একটি আশীর্বাদে পরিণত হবে। আমরা এই এনারজাইজার ওয়াইফাই চার্জারে আরো পাবো ইউএসবি, টাইপ সি ও মাইক্রো ইউএসবি পোর্ট। টাইপ সি ও মাইক্রো ইউএসবি দ্বারা আমরা যেকোনো ব্রান্ডের মোবাইল খুব সহজেই চার্জ করতে পারবো।

এই পাওয়ার ব্যাংক দিয়ে চার্জ দেয়া খুবি সহজ কারণ ওয়াইফাই হওয়ার কারনে এটিতে কোন প্রকার তার বা পোর্ট সংযুক্ত করতে হয় না। ওয়াইফাই হওয়ার কারনে আমরা মোবাইলটিকে সুধু পাওয়ার ব্যাংকের উপর রেখে দিলেই পাওয়ার ব্যাংক তার কাজ শুরু করে দিবে। এই ওয়াইফাই সুবিধা ভোগের জন্য আমাদের আলাদা করে কোন অ্যাপ ব্যবহার করতে হবে না। সম্পূর্ণ আধুনিক ও মনোমুগ্ধকর ডিজাইনে তৈরি করা হয়েছে এনারজাইজারের ম্যাক্স, হাইটেক ও আল্টিমেট সিরিজের পাওয়ার ব্যাংকটি যা ক্রেতা ও ব্যবহারকারীদের রুচি ও চাহিদাকে পূরণ করবে সব দিক থেকেই। ধারনা করা যাচ্ছে যে আগামী ১৫ই আগস্ট থেকে এনারজাইজারের ম্যাক্স, হাইটেক ও আল্টিমেট সিরিজের পাওয়ার ব্যাংকটি বাজারে পাওয়া যাবে।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...