The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

স্টেডিয়ামের দড়িও নাকি চুরি হয় ইংল্যান্ডে!

এমনটিই ঘটেছে ইংল্যান্ডের উত্তর লিংকনশায়ারের বার্টন টাউন ক্রিকেট ক্লাবে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ইংল্যান্ড নাকি খুব সভ্য দেশ। সেখানে নাকি আইনের শাসন থাকে সব সময়। তাই সেখানে নাকি চুরি ডাকাতির মতো ঘটনাও নাকি ঘটে না- এমন কথা এতোদিন আমরা শুনে এসেছি। কিন্ত এবার খবর বেরিয়েছে স্টেডিয়ামের দড়িও নাকি চুরি হয় ইংল্যান্ডে!

স্টেডিয়ামের দড়িও নাকি চুরি হয় ইংল্যান্ডে! 1

ইংল্যান্ড নাকি খুব সভ্য দেশ। সেখানে নাকি আইনের শাসন থাকে সব সময়। তাই সেখানে নাকি চুরি ডাকাতির মতো ঘটনাও নাকি ঘটে না- এমন কথা এতোদিন আমরা শুনে এসেছি। কিন্ত এবার খবর বেরিয়েছে স্টেডিয়ামের দড়িও নাকি চুরি হয় ইংল্যান্ডে!

এমন কথা শুনতে সত্যিই অবাক লাগে এবং অবাক লাগারই কথা। কারণ একটি সভ্য দেশ হিসেবে সুপরিচিত ইংল্যান্ড। এই দেশটি সম্পর্কে বিশ্বের অন্যান্য দেশের বেশ ভালো ধারণা রয়েছে। কিন্তু এবার সংবাদ মাধ্যমের একটি খবর ইংল্যান্ডের সেই সুপরিচিতিকে যেনো ম্লান করে দিয়েছে। ভাবতেও কষ্ট লাগে এমন একটি দেশ সম্পর্কে এমন খবর প্রকাশ পায়।

সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা যায়, খেলার মাঠের সরঞ্জাম মাঝেমধ্যেই চুরি হয় বিভিন্ন দেশে এটি নতুন কোন খবর নয়। তবে আপনি যদি শোনেন যে ক্রিকেট মাঠের বাউন্ডারি লাইনের দড়ি চুরি হয়ে গেছে তাহলে বিষয়টা যেমন হাস্যকর তেমনি অবাক হওয়ার মতো খবর বটে।

ঠিক এমনটিই ঘটেছে ইংল্যান্ডের উত্তর লিংকনশায়ারের বার্টন টাউন ক্রিকেট ক্লাবে। মাঠকর্মী সকালে মাঠে গিয়ে দেখেন যে বাউন্ডারি সীমানায় কোনো দড়ি নেই! ঝোপের ভেতর দিয়ে দড়িটি টেনে নিয়ে গেছে চোরের দল!

বাউন্ডারি লাইনের দড়ি যে সত্যিই চুরি হয়েছে সেটির সত্যতা মেলে স্টেডিয়ামে থাকা সিসিটিভির ফুটেজেও। ক্লাবের যোগাযোগ ব্যবস্থাপক অলিভার মুসেট সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, ‘ফুটেজে দেখা গেছে যে, ঝোপের ঠিক নিচ দিয়ে দড়ি টেনে নিয়ে গেছে চোরের দল। অর্থাৎ তাদের মাঠে যাওয়ার দরকারই হয়নি।’

দড়ি চুরি যাওয়ার পর চোরদের উদ্দেশ্যে টুইট করা হয় বার্টন টাউন ক্লাবের টুইটার পেজেও। তাতে লেখা হয়, ‘গত রাতে যেসব অপদার্থের দল আমাদের বাউন্ডারি সীমানা দড়ি চুরি করেছে তাদের জানানো যাচ্ছে যে, বিষয়টি পুলিশে বলা হয়েছে। সামনে প্রচুর ক্রিকেট অথচ এটি কী একখানা কাজ! সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়া ওই ১৬ জন কারা, সেটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’

টুইটের মাধ্যমে আসলে চোরদের হুমকি দিয়েছেন বার্টন টাউন ক্লাব কর্তৃপক্ষ। যাতে ভয় পেয়ে দড়িটি আবার তারা ফিরিয়ে দিয়ে যায়। কিন্তু আসলেও কী তারা ওই দড়িটি ফিরিয়ে দেবে? এই প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।

Loading...