The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

­­রক্তচাপ কমান ঔষধ ছাড়াই

আমরা যদি আমাদের বাড়তি ওজন কে স্বাভাবিক মাত্রা নিয়ে আসতে পারি তাহলে উচ্চ রক্তচাপের মত সমস্যা থেকে খুব সহজেই পরিত্রান পেতে পারি

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ উচ্চ রক্তচাপ আমাদের সকলের অতি পরিচিত একটি শারীরিক বিপর্যয়ের নাম। আমাদের জীবনযাপনের নানাবিধ সমস্যার মধ্যে উচ্চ রক্তচাপ অন্যতম একটি সমস্যা বা শারীরিক ঝুঁকির মধ্যে অন্যতম। ­­রক্তচাপ কমান ঔষধ ছাড়াই।

­­রক্তচাপ কমান ঔষধ ছাড়াই 1

সাধারণত সিস্টোলিক ব্লাড প্রেসার ১৪০ এর বেশি হলে অথবা ডায়াস্টোলিক ৯০ এর বেশি হলে আমাদের শরীরের এমন অবস্থাকে আমরা উচ্চ রক্তচাপ বলতে পারি। সাধারণত উচ্চ রক্তচাপের ফলে শারীরিক নানা ধরনের সমস্যা দেখা দেয় যার ফলে আমাদের স্বাভাবিক জীবনযাপন এর মাঝে ব্যাঘাত ঘটে। উচ্চ রক্তচাপ হলে আমাদের ওষুধ খাওয়ার পাশাপাশি স্বাভাবিক জীবনযাপন এর মাঝে পরিবর্তন আনতে হয়।

উচ্চ রক্তচাপের ক্ষেত্রে আমাদের প্রাথমিক অবস্থা থেকে সচেতন ভাবে জীবন যাপন করলে এবং আমাদের স্বাভাবিক জীবন যাপনের সাথে কিছু পরিবর্তন করলে এই সমস্যা থেকে পরিত্রান খুব সহজে মিলতে পারে। আমাদের উচ্চতার সঙ্গে আমাদের ওজনের একটি সামাঞ্জস্যতা রাখতে হবে। অতিরিক্ত ওজন বাড়ার ক্ষেত্রে নিজেদেরকে সচেতন হতে হবে। অতিরিক্ত ওজন আমাদের শারীরিক নানা ধরনের বিপর্যয় ডেকে আনতে পারে এর মধ্যে উচ্চ রক্তচাপ অন্যতম।

আমরা যদি আমাদের বাড়তি ওজন কে স্বাভাবিক মাত্রা নিয়ে আসতে পারি তাহলে উচ্চ রক্তচাপের মত সমস্যা থেকে খুব সহজেই পরিত্রান পেতে পারি। ওজন বাড়ার সাথে সাথে আমাদের স্বাভাবিক জীবনযাপন পরিচালনার ক্ষেত্রে নানা ভাবে ব্যাঘাত ঘটতে পারে যার মধ্যে ঘুমের অসুবিধা হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়। ঘুমের সমস্যার ফলে রক্তচাপ বাড়তে পারে।

নিয়মিত প্রতিদিন অন্তত ৩০ মিনিট ব্যায়াম করলে আমাদের শরীরের রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে। নিয়মিত ব্যায়াম করার সময় আমাদের হৃদপিণ্ড শক্ত হয় এবং পাম্প করার সময় কম চাপ অনুভূত হয় যার ফলে রক্তচাপ স্বাভাবিক থাকে। রক্তচাপের ব্যায়ামের মধ্যে গভীর শ্বাস প্রশ্বাসের ব্যায়াম খুবই গুরুত্বপূর্ণ ও উপকারী। এই গভীর শ্বাস প্রশ্বাসের ব্যায়াম মানসিক চাপ কমাতেও বেশ উপকারী এবং এটি শিথিল একটি ব্যায়াম। শ্বাস প্রশ্বাসের ব্যায়াম দ্বারা আমাদের মানসিক চাপ কমে ফলে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে মানসিক চাপ আমাদের শরীরে উচ্চ রক্তচাপ বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে।

ধূমপান স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর যা আমাদের সকলের বোধগম্য। তবুও যেন ধূমপায়ীদের সংখ্যা দিনে দিনে বৃদ্ধি পাচ্ছে আর তার পাশাপাশি বৃদ্ধি পাচ্ছে ধূমপানের কারণে সৃষ্টি হওয়া সকল রোগের সংখ্যাও। ধূমপান হৃদরোগের পাশাপাশি যৌন ক্ষমতাকেও নষ্ট করে দিচ্ছে এবং তার পাশাপাশি ধূমপান উচ্চ রক্তচাপের ক্ষেত্রে ভয়াবহ ভূমিকা পালন করে। ধূমপান বন্ধ না করলে উচ্চ রক্তচাপ বাড়তে পারে কারন তামাকের মধ্যে থাকা রাসায়নিক পদার্থসমূহ আমাদের রক্তনালির দেয়ালকে ক্ষতিগ্রস্থ করে যার ফলে উচ্চ রক্তচাপ হওয়ার আশংকা বৃদ্ধি পায়। ধূমপান আর্টারিকে সরু করে দেয় যা রক্তনালীকেও ক্ষতিগ্রস্থ করে। সুতরাং উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে এবং শারীরিক ঝুঁকি কমাতে ধূমপানের পরিত্যাগ করা ছাড়া কোনো বিকল্প নেই।

লবণ আমাদের খাবারের স্বাদ বৃদ্ধির কাজ করে কিন্তু এই স্বাদ হতে পারে আমাদের শরীরের উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকির অন্যতম একটি কারণ। ইলেকট্রোলাইড এন্ড ব্লাড প্রেসারে প্রকাশিত একটি গবেষণায় জানা যায় উচ্চ রক্তচাপের পাশাপাশি স্ট্রোকের ঝুঁকি বারাতে লবণ খুবি ভয়াবহ ভুমিকা পালন করে। সে ক্ষেত্রে আমাদের সকলেরই লবণ পরিত্যাগ করতে হবে। আমাদের সকলের উচ্চ রক্তচাপের পাশাপাশি স্ট্রোকের ঝুঁকি থেকে পরিত্রান পেতে লবণকে খাবার এর তালিকা থেকে বাদ দিতে হবে। লবণকে পরিত্যাগ করা হঠাৎ করে সম্ভব নয় সেক্ষেত্রে খাবারে লবণের পরিমাণ ধিরে ধিরে কমিয়ে একে আয়ত্তে আনা যেতে পারে।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...