The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

বুলেটের মুখোমুখি হতে আমরা জন্মাইনি: অরুন্ধতী রায়

ভারতের জাতীয় জনসংখ্যা নিবন্ধীকরণ (এনপিআর) ও নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (এনআরসি) র বিরুদ্ধে কড়া বক্তব্য দিয়েছেন দেশটির প্রতিথযশা লেখিকা অরুন্ধতী রায়

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ভারতের জাতীয় জনসংখ্যা নিবন্ধীকরণ (এনপিআর) ও নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (এনআরসি) র বিরুদ্ধে কড়া বক্তব্য দিয়েছেন দেশটির প্রতিথযশা লেখিকা অরুন্ধতী রায়। অরুন্ধতী রায় বলেছেন যে, শুরুতেই এই আইনের বিরোধিতা করতে হবে। এনআরসি মুসলিমদের ক্ষেত্রে সমস্যা সৃষ্টি করবে। বুলেটের মুখোমুখি হতে আমরা জন্মাইনি।

বুলেটের মুখোমুখি হতে আমরা জন্মাইনি: অরুন্ধতী রায় 1

ভারতের জাতীয় জনসংখ্যা নিবন্ধীকরণ (এনপিআর) ও নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (এনআরসি) র বিরুদ্ধে কড়া বক্তব্য দিয়েছেন দেশটির প্রতিথযশা লেখিকা অরুন্ধতী রায়। অরুন্ধতী রায় বলেছেন যে, শুরুতেই এই আইনের বিরোধিতা করতে হবে। এনআরসি মুসলিমদের ক্ষেত্রে সমস্যা সৃষ্টি করবে। বুলেটের মুখোমুখি হতে আমরা জন্মাইনি।

দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে যোগ দিয়ে এই লেখিকা আহ্বান জানিয়ে আরও বলেন, রুখে দাঁড়াতে হলে আগেই রুখে দাঁড়ান। এনপিআর করতেই দেবেন না। প্রয়োজনে এনপিআর এর সময় ভুল তথ্য এবং ঠিকানা দিয়ে এর বিরোধিতা করুন।

অরুন্ধতী রায় বলেন, এর বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্যে নির্দিষ্ট পরিকল্পনার মাধ্যমে এগোনো দরকার। যখন ওরা আপনার বাড়িতে এনপিআরের জন্য তথ্যসংগ্রহে যাবেন ও আপনার নাম জিজ্ঞাসা করবেন, আপনি তখন ওদের কাছে ভুল নাম বলুন। ঠিকানা চাইলেই বলুন ৭। এতে করে বিভ্রান্তি তৈরি করা যাবে। মনে রাখবেন, আমরা এখানে লাঠিপেটা কিংবা গুলি খাওয়ার জন্যে জন্মগ্রহণ করিনি।

অরুন্ধতী রায় অভিযোগ করে বলেন, দেশে ব্যাপক বিক্ষোভ সত্ত্বেও সরকার এনআরসি ও সিএএ-র নিয়মকে এনপিআরের মাধ্যমে চাপিয়ে দেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে। উত্তরপ্রদেশের পুলিশ মুসলিমদের উপর হামলা এবং নিপীড়ণ চালিয়ে যাচ্ছে বলেও অভিযোগ করেছেন অরুন্ধতী রায়।

অরুন্ধতী রায় বলেন, উত্তরপ্রদেশে মুসলিমদের উপর হামলা চালানো হচ্ছে। পুলিশ ঘরে ঘরে ঢুকে অবাধে লুটপাটও চালাচ্ছে। এটি কখনও মেনে নেওয়া যায় না।

উল্লেখ্য, ভারতের জাতীয় জনসংখ্যা নিবন্ধীকরণ (এনপিআর) ও নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (এনআরসি) করার পর থেকে দেশটিতে শুরু হয়েছে প্রতিবাদ। দেশটির কলেজ -বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র- ছাত্রীরাও রাস্তায় নেমে এসেছেন। দেশটির বুদ্ধিজীবি থেকে শুরু করে সকল শ্রেণীর মানুষ এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছে। দেশটির বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো বর্তমান মোদি সরকারের বিরুদ্ধে দেশকে বিভক্ত করার অভিযোগ তুলেছেন। ইতিমধ্যেই প্রায় অর্ধ শতাধিক মানুষ দাঙ্গায় নিহত হয়েছেন বলে বিভিন্ন সময় সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা যায়। এমন এক পরিস্থিতি অনুধাবন করে দেশটির এই প্রথিতযশা লেখিকা এমন মন্তব্য করলেন।

Loading...