The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

আম্পানের ছোবলে বিপর্যস্ত বিদ্যুৎ সরবরাহ

ঝড়ের কারণে রাজধানীসহ দেশের অন্য এলাকাতেও বিদ্যুৎ সরবরাহ বিঘ্নিত হয়

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ঘূর্ণিঝড় ‘আম্পানের’ আঘাতে বিপর্যয়ের কবলে পড়েছে দেশের দক্ষিণ ও উত্তরাঞ্চলের বিদ্যুৎ বিতরণ ব্যবস্থা। প্রায় সোয়া দুই কোটি গ্রাহক দীর্ঘ সময় বিদ্যুৎ বিচ্ছন্ন অবস্থায় ছিল।

আম্পানের ছোবলে বিপর্যস্ত বিদ্যুৎ সরবরাহ 1

ঝড়ের কারণে রাজধানীসহ দেশের অন্য এলাকাতেও বিদ্যুৎ সরবরাহ বিঘ্নিত হয়। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত অধিকাংশ এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু হলেও উপকূলীয় ও উত্তরের অনেক জেলায় বিদ্যুৎ সরবরাহ এখনও স্বাভাবিক হয়নি। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত প্রায় এক কোটি গ্রাহক ছিলেন বিদ্যুৎহীন। ৬০ লাখ গ্রাহক বিদ্যুৎহীন থাকবে বলে আশঙ্কা করা হয়েছে।

প্রাথমিক হিসাব অনুযায়ী ঝড়ে বিতরণ কোম্পানিগুলোর ৩০ থেকে ৩৫ কোটি টাকার সমপরিমাণ ক্ষতিও হয়েছে। এর পরিমাণ আরও বাড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। আম্পানে সারা দেশে প্রায় আড়াই হাজার বৈদ্যুতিক খুঁটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সাড়ে ৫ হাজার পোল এতে হেলে পড়েছে। গাছ ভেঙে পড়ে ৭ থেকে ৮ হাজার কিমি লাইন ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। প্রায় ৯শ ট্রান্সফরমার নষ্ট হয়েছে। মিটার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ২০ হাজার হতে ২৫ হাজার।

স্বাভাবিক সময়ে এই মৌসুমে বিদ্যুতের চাহিদা ১০ হাজার মেগাওয়াট হলেও আম্পানের কারণে বুধবার রাতে তা আড়াই হাজার মেগাওয়াটে নেমে গিয়েছিলো। বিতরণ ব্যবস্থার মেরামতের পরও বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় চাহিদা ৫ হাজার মেগাওয়াট পেরোয়নি।

উল্লেখ্য, ঘূর্নিঝড় আম্পানের ছোবলে দেশে দক্ষিণ ও উত্তরাঞ্চলে ব্যাপক ফসলের ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে। বহু কাঁচা বাড়ি ঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। এ পর্যন্ত ১৬ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...