The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

টিকটক উসকানিমূলক কনটেন্টের বিরুদ্ধে সতর্ক করলো

উসকানিমূলক কনটেন্ট প্রকাশের কারণে কয়েকজন ব্যবহারকারীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থাও নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে টিকটক কর্তৃপক্ষ

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ভিডিও শেয়ারের সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং প্লাটফর্ম টিকটক তার ব্যবহারকারীদের নারী নির্যাতনে উসকানিমূলক কনটেন্টের ব্যাপারে সতর্ক করেছে।

টিকটক উসকানিমূলক কনটেন্টের বিরুদ্ধে সতর্ক করলো 1

উসকানিমূলক কনটেন্ট প্রকাশের কারণে কয়েকজন ব্যবহারকারীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থাও নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে টিকটক কর্তৃপক্ষ।

ভারতের মহারাষ্ট্রে ফয়জল সিদ্দিকি নামে এক টিকটক ব্যবহারকারীর কনটেন্ট নারী নির্যাতনে উসকানিমূলক বলে অভিযোগ ওঠার পরই প্লাটফর্মটির স্থানীয় কার্যালয় এক বিবৃতিতে এমন সতর্কতা জারি করেছে।

বিবৃতিতে বলা হয় যে, নিরাপদ ও ইতিবাচক প্রচারই আমাদের মূল লক্ষ্য। আমাদের ব্যবহারবিধি এবং নির্দেশিকায় স্পষ্ট উল্লেখ রয়েছে যে, কী করণীয়, কী করণীয় নয়। আমরা আশা রাখবো টিকটক ব্যবহারীকারীরা সেই গাইডলাইন মেনেই চলবেন।

গত কয়েকদিন ধরে একাধিক বিধি লঙ্ঘনকারী কনটেন্টের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে উল্লেখ করে বিবৃতিতে আরও বলা হয় যে, বিতর্কিত কনটেন্ট সরিয়ে দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্টও সাসপেন্ড করা হয়েছে। প্রয়োজনে টিকটক ইন্ডিয়া প্লাটফর্মের অপব্যবহার রুখতে আইনের আশ্রয়ও নেওয়া হবে।

ফয়জল সিদ্দিকির বানানো ওই ভিডিওতে দেখা যায় যে, সেখানে একজন ‘তামাশা’র ছলে জনৈকা নারীকে নির্যাতনের উসকানি দিচ্ছেন।

এই বিষয়ে প্রতিবাদ জানিয়ে ভারতের জাতীয় মহিলা কমিশন টিকটককে চিঠি পাঠান। সেখানে বিতর্কিত ওই কনটেন্ট সরানোর দাবিও জানানো হয়। প্রতিবাদপত্রে বলা হয় যে, ‘বিতর্কিত ভিডিওটি দেখে মনে হচ্ছে নারী নির্যাতনে মদত দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি নারী-বিদ্বেষী একটা মনোভাবও ফুটে উঠেছে এতে।’

এই বিতর্কে টিকটকবিরোধী সমালোচনা শুরু হয় ভারতের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। কয়েকটি সূচকে টিকটকের মানমাত্রা ৩-এর নিচে নেমে গেছে বলেও জানিয়েছে সংবাদ মাধ্যমগুলো।

উল্লেখ্য, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর ব্যবহার শুধু ভারত নয় আমাদের দেশেও যথেচ্ছাভাবে হয়ে থাকে। এগুলো ব্যবহারে সকলকেই আরও সতর্ক হওয়া দরকার।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...