The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

এক চার্জে এক মাস চলবে নকিয়া ৫৩১০

এই ফোনটি হলো ২০০৭ সালে লঞ্চ করা নকিয়া ৫৩১০ এক্সপ্রেস মিউজিকের নতুন একটি ভার্সন

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ১৩ বছর আগের একটি নকিয়া ফোনকে নতুন রূপে ফিরিয়ে এনেছে এইচএমডি গ্লোবাল। ভারতে লঞ্চ হয়েছে নকিয়া ৫৩১০। এটি এক চার্জে এক মাস চলবে!

এক চার্জে এক মাস চলবে নকিয়া ৫৩১০ 1

এই ফোনটি হলো ২০০৭ সালে লঞ্চ করা নকিয়া ৫৩১০ এক্সপ্রেস মিউজিকের নতুন একটি ভার্সন। ১৩ বছর পূর্বের একটি নকিয়া ফোনকে নতুন রূপে ফিরিয়ে নিয়ে এলো এইচএমডি গ্লোবাল। ভারতে লঞ্চ করেছে নকিয়া ৫৩১০।

জানা গেছে, নতুন এই নকিয়া ফিচার ফোনে এমপি ৩ এবং এফএম এর সুবিধাও দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও কোম্পানীটি নকিয়া ৫৩১০ ফোনে দুটি স্পিকারও দিয়েছে। এছাড়াও এই ফোনে পাওয়া যাবে মাল্টি কালার ডিজাইন, মাইক্রোএসডি সিম কার্ড স্লট এবং ডুয়েল সিম স্লট।

ভারতে নকিয়ার এই ৫৩১০ ফোনটির দাম রাখা হয়েছে ৩,৩৯৯ রুপি। যদিও ইউরোপে এই ফোনটি ৩,১০০ টাকায় লঞ্চ হয়। ফোনটি সাদা+লাল এবং কালো+লাল রঙে পাওয়া যাচ্ছে।

ফিচারের কথা বলতে গেলে বলতে হয়, নকিয়া ৫৩১০ ফোনে ২.৪ ইঞ্চি কিউভিজিএ ডিসপ্লে পাওয়া যাবে। এতে রয়েছে ডুয়েল টোন ফিনিশ। সেই সঙ্গে এই ফোনে উন্নত পারফরম্যান্সের জন্য আরও রয়েছে এমটি৬২৬০এ সিপিইউ, ৮ এমবি র‌্যাম ও ১৬ এমবি স্টোরেজ সুবিধা। মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে এর স্টোরেজ ৩২ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো সম্ভব। এছাড়াও এই ফোনটি ৩০+ অপারেটিং সিস্টেমে কাজ করে থাকে।

যদিও নকিয়া এই ফোনে ভিজিএ ক্যামেরা ব্যবহার করেছে। তাছাড়াও কানেক্টিভিটির জন্য মাইক্রো ইউএসবি পোর্ট, ডুয়েল সিম ও ব্লুটুথ ৩.৯, ২জি এর মতো ফিচারও দেওয়া হয়েছে। এই ফোনে পাওয়া যাবে ১,২০০ এমএএইচ ব্যাটারি। কোম্পানীটি দাবি করেছে যে, এবার চার্জে এই ফোন এক মাস স্ট্যান্ডবাই টাইম দেবে!

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...