The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

ভারতীয় সৈন্যদের নিষ্ঠুরভাবে মেরেছে চীন!

দ্য ইস্টার্নলিঙ্ক নামে ভারতীয় একটি গণমাধ্যম দেশটির সেনাবাহিনীর কাছ থেকে প্রাপ্ত এসব ছবি পেয়েছে বলে দাবি করে তা প্রকাশ করেছে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ লাদাখ সীমান্তে ভারতীয় সেনাবাহিনীর সদস্যদের পিটিয়ে নির্মমভাবে হত্যার রোমহর্ষক কিছু ছবি প্রকাশিত হয়।

ভারতীয় সৈন্যদের নিষ্ঠুরভাবে মেরেছে চীন! 1

দ্য ইস্টার্নলিঙ্ক নামে ভারতীয় একটি গণমাধ্যম দেশটির সেনাবাহিনীর কাছ থেকে প্রাপ্ত এসব ছবি পেয়েছে বলে দাবি করে তা প্রকাশ করেছে।ইস্টার্নলিঙ্ক বলেছে, গত ১৫ জুন লাদাখে চীনা সেনাবাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত ভারতীয় সৈন্যদের বেশ কিছু ছবি সেনা সূত্রে পাওয়া যায়।

ওই দিনের সংঘর্ষে চীনের অন্তত ৪৪ সৈন্য নিহত হয়েছে বলেও ভারতীয় এই সংবাদমাধ্যমটি দাবি করেছে। তবে চীনা সৈন্যদের হতাহতের কোনও ছবি সংগ্রহ না করতে পােরেনি বলে জানিয়েছে ইস্টার্নলিঙ্ক।

হিমালয় অঞ্চলের বিতর্কিত সীমান্তে প্রতিবেশি ভারতীয় সামরিক বাহিনীর সঙ্গে চীনা সৈন্যদের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের বিষয়ে শনিবার প্রথমবারের মতো আনুষ্ঠানিকভাবে মন্তব্য করেছে বেইজিং। এই মন্তব্যে ভারতীয় সৈন্যদের বিরুদ্ধে ইচ্ছাকৃতভাবে উস্কানি দেওয়ার অভিযোগ তুলেছে চীন।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র লিজিাংন ঝ্যাও বলেছেন যে, ভারতীয় সৈন্যরা সীমান্ত অতিক্রম করে চীনা ভূখণ্ডে ঢুকে আক্রমণ চালিয়েছিলো। এতে দুই দেশের সামরিক বাহিনীর মধ্যে ভয়াবহ শারীরিক সংঘাত শুরু হয়ে যায়।

ঝ্যাও আরও বলেন, সংঘর্ষের ঘটনাটি এমন এক সময় ঘটলো যখন দুই দেশের মাঝে উত্তেজনা কমিয়ে আনা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, গালওয়ান উপত্যকার পরিস্থিতি শান্ত থাকা সত্ত্বেও গত ১৫ জুন ভারতীয় সৈন্যরা আবারও প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা অতিক্রম করে চীনা ভূখণ্ডে প্রবেশ করে ইচ্ছাকৃতভাবে উসকানি দিতে থাকেন। ভারতের সম্মুখসারির সৈন্যরা চীনা কর্মকর্তা এবং সৈন্যদের ওপর সহিংস আক্রমণও চালায়।

চীনা এই কর্মকর্তা আরও বলেন, যদিও চীনা সৈন্যরা সেখানে গিয়েছিলেন ভারতীয় সৈন্যদের সঙ্গে আলোচনা করে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে। তবে ভারতীয় সৈন্যদের সহিংস আক্রমণ শারীরিক সংঘাতে রূপ নিলে সেখানে হতাহতের ঘটনাটি ঘটেছে।

চীনা এই কর্মকর্তা ঝ্যাও বলেন, গত এপ্রিল থেকেই গালওয়ান উপত্যকার প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় সড়ক, সেতু ও অন্যান্য স্থাপনা নির্মাণ করছে ভারত।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...