The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

এটিএম না ছুঁয়েও টাকা তোলা সম্ভব!

এটিএম মেশিন না ছুঁয়েই এটিএম থেকে টাকা তোলা যাবে, এড়ানো যাবে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকিও!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ এটিএম বুথ বার বার স্যানিটাইজার করা সম্ভব নয়। মেশিন না ছুঁয়ে এটিএম হতে টাকা তোলা সম্ভব। যে কারণে টাকা তোলার পরও করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি থাকবে না!

এটিএম না ছুঁয়েও টাকা তোলা সম্ভব! 1

এটিএম মেশিন না ছুঁয়েই এটিএম থেকে টাকা তোলা যাবে, এড়ানো যাবে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকিও! আপাতত নতুন পদ্ধতির ট্রায়াল চালানো হচ্ছে আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের বেশ কিছু এটিএম-এ।

এজিএসটিটিএল- নামে দেশটির একটি বেসরকারি সংস্থা বিশেষ সফ্টওয়্যার কাজে লাগিয়ে স্মার্টফোনের সাহায্যেই না ছুঁয়েই এটিএম হতে টাকা তোলার নতুন উপায় নিয়ে হাজির হয়েছেন।

সংস্থাটি জানিয়েছে, এর জন্য এটিএম মেশিনও পাল্টাতে হতে না। শুধু এটিএম-এর সফ্টওয়্যার আপডেট করলেই হয়ে যাবে।

এটিএম-এর সফ্টওয়্যার আপডেট করানোর পর এই পদ্ধতিতে টাকা তুলতে গেলে মেশিনের স্ক্রিনে ফুটে ওঠা কিউআর কোডটি ব্যাঙ্কের মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করে স্ক্যান করতে হবে।

এরপর প্রয়োজনীয় অর্থ স্মার্টফোন থেকেই সংখ্যা লিখে ট্রানজেকশন নিশ্চিত করার জন্য ‘এমপিন’ ব্যবহার করতে হবে। তারপরই এটিএম হতে বেরিয়ে আসবে টাকা।

এজিএসটিটিএল সংস্থাটির চেয়ারম্যান, এমডি রবি গোয়েল এই বিষয়ে জানিয়েছেন, করোনার আবহে ডিজিটাল লেনদেন বাড়লেও এখনও যথেষ্ট পরিমাণে নগদ লেনদেন হয়ে থাকে ভারতে।

কিউআর কোড স্ক্যান করে না ছুঁয়েই এটিএম হতে টাকা তোলা গেলে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি অনেকটাই এড়ানো সম্ভব হবে বলে মনে করা হচ্ছে। আমাদের দেশেও এই ধরনের প্রযুক্তি ব্যবহার করে না ছুঁয়ে এটিএম হতে টাকা উত্তোলনের পদ্ধতি করা দরকার।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...