মৃত্যুদণ্ডের ঘোষণায় আমি উদ্বিগ্ন নই- মুজাহিদ

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় দণ্ডিত জামায়াতের সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ বলেছেন, মৃত্যুদণ্ডের ঘোষণায় আমি মোটেও উদ্বিগ্ন নই।

Ali Ahsan Mohammad Mujahid

জানা গেছে, মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় দণ্ডিত জামায়াতের সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ বলেছেন ‘প্রতিদিন বাংলাদেশে শত শত লোক স্বাভাবিকভাবে মৃত্যুবরণ করে। এসব মৃত্যুর সঙ্গে ফাঁসির আদেশের কোন সম্পর্ক নেই। কখন, কার, কিভাবে মৃত্যু হবে সেটা একমাত্র আল্লাহতায়ালা নির্ধারণ করেন। আল্লাহর সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের কোন সাধ্য কারো নেই। সুতরাং ফাঁসির আদেশে কিছু যায় আসে না। আমি মৃত্যুদণ্ড ঘোষণায় উদ্বিগ্ন নই।’

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত মুজাহিদী আরও বললেন, ‘অন্যায়ভাবে কাওকে হত্যা করা গোটা মানব জাতিকে হত্যা করার শামিল। সরকার রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে যে শাস্তির ব্যবস্থা করেছে তার জন্য আমি মোটেই বিচলিত নই। আমি আল্লাহর দ্বীনের উদ্দেশ্যে আমার জীবন কুরবান করার জন্য সর্বদা প্রস্তুত আছি।’

গতকাল ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদের সঙ্গে ডিফেন্স টিমের তিনজন আইনজীবী সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি এসব কথা বলেন। ১৭ই জুলাই আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল মুজাহিদকে মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত করার পর এই প্রথম আইনজীবীরা তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। তারা হলেন- সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী, ডিফেন্স টিমের প্রধান ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাক, ইমরান-এ-সিদ্দিকী ও মতিউর রহমান আকন্দ।

জানা গেছে, সাক্ষাৎকালে আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ তার আপিল মামলার প্রস্তুতির বিষয়ে প্রয়োজনীয় দিক নির্দেশনা দেন। যে ৫টি অভিযোগে তাকে সাজা দেয়া হয়েছে তার প্রত্যেকটি অভিযোগের ফ্যাক্টস্‌ অ্যান্ড লিগ্যাল বিষয়সমূহ তুলে ধরে আপিলের প্রস্তুতি নেয়ার জন্য দিক নির্দেশনা দেন তিনি। বলেন, ‘আমি ট্রাইব্যুনালে সাক্ষীদের প্রদত্ত জবানবন্দি, জেরা ও আরগুমেন্ট অত্যন্ত মনোযোগের সঙ্গে শুনেছি। আমাকে ওসব মিথ্যা অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত করার কোন সুযোগ নেই। প্রসিকিউশন আমার বিরুদ্ধে আনীত কোন অভিযোগই প্রমাণ করতে পারেনি। এই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা স্বীকার করেছেন, বাংলাদেশের কোথাও ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ে সংঘটিত কোন অপরাধের কিংবা আল-বদর, শান্তিকমিটি, রাজাকার, আলশামস বা এই ধরনের কোন সহযোগী বাহিনীর সঙ্গে আমার সম্পৃক্ততা ছিল- এমন কোন তথ্য তিনি তার তদন্তকালে পাননি। এরপরও ট্রাইব্যুনাল আমাকে সর্বোচ্চ শাস্তি প্রদান করেছেন। আমি ন্যায়বিচার থেকে বঞ্চিত হয়েছি। তিনি বললেন, আমি বিশ্বাস করি আমার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সুপ্রিম কোর্টে মিথ্যা প্রমাণিত হবে এবং আমি জনগণের মাঝে ফিরে যাবো।’ ঠিক এভাবেই তার অভিমত ব্যক্ত করেছেন মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারী জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ। তথ্যসূত্র: দৈনিক মানবজমিন।

Advertisements
Loading...