The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

করোনার ‘প্রকৃত তথ্য’ প্রকাশ: ইরানে পত্রিকা বন্ধ

প্রথম থেকেই ইরানের সরকারের বিরুদ্ধে করোনায় আক্রান্ত-মৃত্যুর সংখ্যা কম দেখানোর অভিযোগ রয়েছে, প্রকৃতপক্ষে সেই সংখ্যাটা ২০ গুণেরও বেশি

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ করোনার প্রাদুর্ভাব শুরুর পর প্রথমদিকে যেসব দেশে প্রকোপ মারাত্মক আকার ধারণ করেছিল তারমধ্যে অন্যতম হলো ইরান। সেখানে করোনার ‘প্রকৃত তথ্য’ প্রকাশ করার কারণে পত্রিকা বন্ধ করা হয়েছে।

করোনার ‘প্রকৃত তথ্য’ প্রকাশ: ইরানে পত্রিকা বন্ধ 1

প্রথম থেকেই ইরানের সরকারের বিরুদ্ধে করোনায় আক্রান্ত-মৃত্যুর সংখ্যা কম দেখানোর অভিযোগ রয়েছে। এবার করোনার ‘প্রকৃত তথ্য’ প্রকাশ করার কারণে দেশটির একটি পত্রিকা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

ইরানে সরকারিভাবে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত এবং মৃতের যে সংখ্যা জানানো হয়, সেটি দেশের মহমারি পরিস্থিতির প্রকৃত চিত্র নয়; তাতে বাস্তব অবস্থার মাত্র ৫ শতাংশ প্রতিফলিত হয়েছে- এমন মন্তব্য করে এক বিশেষজ্ঞের লেখা প্রকাশের কারণে গত সোমবার ইরানের একটি পত্রিকার প্রকাশনা বন্ধ করে দিয়েছে দেশটির সরকার।

দেশটির বার্তা সংস্থা ইসলামিক রিপাবলিক নিউজ এজেন্সিকে (আইআরএনএ) প্রকাশনা বন্ধের কথা নিশ্চিত করেছেন ‘জাহানে সানাত’ নামে ওই পত্রিকাটির প্রধান সম্পাদক মোহাম্মদ রেজা সাদি। ২০০৪ সাল হতে প্রকাশিত হয়ে আসা ওই পত্রিকাটি মূলত অর্থনৈতিক সংবাদ নিয়েই কাজ করে থাকেন।

পত্রিকাটির রোববারের সংখ্যায় মহামারি বিশেষজ্ঞ মোহাম্মদ রেজা মাহবুবফার এক লেখায় মন্তব্য করেন যে, ইরানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় দেশে মহামারি নভেল করোনা ভাইরাস সংক্রমিত কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত এবং মৃতের যে সংখ্যা জানাচ্ছে, প্রকৃতপক্ষে সেই সংখ্যাটা ২০ গুণেরও বেশি।

তিনি আরও লেখেন যে, দেশটিতে গত ১৯ ফেব্রুয়ারি প্রথমবার কারও দেহে করোনার শনাক্ত হওয়ার কথা বলা হলেও প্রকৃত অর্থে তা শনাক্ত হয়েছে আরও অন্তত এক মাস আগে অর্থাৎ জানুয়ারিতে। ওই মাসের শুরুতে ইরানের ইসলামি বিপ্লবের বার্ষিকী উদযাপন এবং পার্লামেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠানের কারণে ওই তথ্য গোপন করা হয়।

মোহাম্মদ রেজা মাহবুবফার অভিযোগ করেন যে, ‘রাজনৈতিক এবং নিরাপত্তাজনিত কারণেই এই গোপনীয়তার আশ্রয় নিয়েছে প্রশাসন’।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে, সরকারি হিসাবে ইরানে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা প্রায় ৩ লাখ ৩০ হাজার জন। আক্রান্তদের মধ্যে ১৮ হাজার ৬১৬ জন মারাও গেছেন।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...