The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

করোনার টিকা নিয়ে ভারতে একজনের মৃত্যু

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ভারতে করোনা ভাইরাসের টিকা নেওয়ার ২৪ ঘন্টা পর একজনের মৃত্যু ঘটেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। তাছাড়াও নানা পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে ৪৪৭ জনের শরীরে।

করোনার টিকা নিয়ে ভারতে একজনের মৃত্যু 1

গত শনিবার ভারতে করোনার টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়। দেশটির ৩ হাজার ৬টি কেন্দ্রে একই সঙ্গে টিকাদান কর্মসূচির উদ্বোধন করেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

তবে ভারতের উত্তরপ্রদেশের সরকারি হাসপাতালের একজন কর্মী টিকা নেওয়ার ২৪ ঘণ্টা পর মারা গেছেন। যদিও জেলার প্রধান মেডিকেল অফিসার বলেছেন, টিকা নেওয়ার সঙ্গে এই মৃত্যুর কোনো সম্পর্ক নেই।

এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, করোনার টিকা নেওয়ার ২৪ ঘণ্টা পর উত্তরপ্রদেশের মরাদাবাদে মাহিপাল সিংহ নামে ৪৬ বছর বয়সী একজন সরকারি হাসপাতাল কর্মীর মৃত্যু ঘটেছে।

তবে জেলা মেডিক্যাল প্রধান কর্মকর্তা জানিয়েছেন যে, ওই ব্যক্তির মৃত্যুর সঙ্গে টিকা নেওয়ার কোনো সম্পর্কই নেই। নিহত মাহিপাল সিংহ ছিলেন উত্তরপ্রদেশের মরাদাবাদে হাসপাতালের ওয়ার্ড বয়। ওই ব্যক্তির পরিবার দাবি করেছেন, মারা যাওয়ার আগে বুকে রক্তজমাট এবং শ্বাসকষ্টের কথা জানিয়েছিলেন মাহিপাল সিংহ।

মরাদাবাদের মেডিক্যাল প্রধান সাংবাদিকদের বলেছেন যে, ‘শনিবার দুপুর নাগাদ তাকে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়। তারপর তিনি রবিবার বুকে রক্তজমাট এবং শ্বাসকষ্ট অনুভব করেন। আমরা তার মৃত্যুর কারণ অনুসন্ধান করে দেখছি। আমরা পোস্টমর্টেম করবো। আমাদের মনে হচ্ছে, এই ঘটনা টিকা দেওয়ার কারণে ঘটেনি। তিনি শনিবারও দায়িত্ব পালন করেন এবং কোনো রকম সমস্যাও ছিল না।’

নিহত ওই ব্যক্তির সন্তান সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, টিকা দেওয়ার আগে থেকেই হয়তো তার বাবা অসুস্থ ছিলেন, তবে টিকা নেওয়ার পরই বেশি করে অসুস্থ হয়ে পড়েন।

তিনি বলেছেন যে, ‘আমার বাবা দুপুর দেড়টা নাগাদ টিকাদান কেন্দ্র ছেড়ে আসেন। আমি গিয়ে তাকে বাড়ি নিয়ে আসি। তিনি কাশছিলেন এবং তার শ্বাসকষ্টও হচ্ছিল।’

ওই ব্যক্তি আরও জানিয়েছেন, তার বাবার হালকা নিউমোনিয়া, স্বাভাবিক কাশি ও সর্দিও ছিল। তবে বাড়ি আসার পর অবস্থা বেগতিক মনে হয়।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...