এখন থেকে মানুষের মুখমণ্ডল ব্যবহার হবে ক্রেডিট কার্ড হিসেবে

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক॥ ব্যাংক বুথ কিংবা শপিং করতে গিয়ে আর ক্রেডিট কার্ড সুইপ করতে হবেনা! এখন থেকে ক্রেডিট কার্ড নয় আপনার মুখমণ্ডল দেখিয়েই আপনার একাউন্ট থেকে টাকা উত্তোলন সহ কেনাকাটা করতে পারবেন।


WorldOfUnique

ফিনল্যান্ডের ইউনিকুল নামের একটি প্রতিষ্ঠান সম্প্রতি ‘পে-বাই-ফেস’ নামে একটি অথেনটিকেশন সিস্টেমের উদ্ভাবন করেছে। এ প্রযুক্তিতে আপনার মুখই হবে ক্রেডিট কার্ডের বিকল্প। অর্থ উত্তোলনের জন্য কিংবা কেনাকাটা করতে গিয়ে ফেইস স্ক্যানারের সামনে দাঁড়িয়ে বিশেষ মুখভঙ্গি করলে ফেইস স্ক্যানার বায়োমেট্রিক তথ্য ব্যবহার করে চিনে ফেলবে ব্যক্তিকে এবং তার একাউন্ট নাম্বার ও ব্যাংক হিসেবের সকল তথ্য সে হিসেবেই এটি কেনাকাটা বা ব্যক্তিগত উত্তোলনের জন্য অর্থ ছাড় করবে।

মানুষের মুখমণ্ডল হচ্ছে ইউনিক অর্থাৎ একজন মানুষের সাথে আরেক জনের মিল নেই। ইউনিকুল প্রযুক্তির এ কম্পিউটার ব্যবস্থা মানুষের মুখের আদলের পার্থক্য সূক্ষ্ম পর্যায় পর্যন্ত শনাক্ত করতে পারে।

ইউনিকুল গবেষকরা জানান এ প্রযুক্তি অত্যন্ত সংরক্ষিত ও নিরাপদ, কারণ এ ব্যবস্থায় ব্যবহার করা হয়েছে বিভিন্ন স্থরের গাণিতিক হিসেব। এ প্রযুক্তি আইডেন্টিকাল যমজদের ক্ষেত্রেও চেহারা আলাদা ভাবে চিনে ফেলতে পারবে। তারা আরও জানান ইউনিকুল পে-বাই-ফেস প্রযুক্তি দিয়ে আগামী মাস থেকেই পরীক্ষামূলক টাকা উত্তোলন করা হবে।

ইউনিকুল জানায় তাঁদের পে-বাই-ফেস প্রযুক্তিটি হবে অনেকটা এরকম, আপনি যদি কেনাকাটা করতে যান তবে দোকানদারদের কাছে থাকা ইউনিকুলের পে-বাই-ফেস ট্যাবলেট দিয়ে আপনার মুখ স্ক্যান করার পর এটি নিজে থেকে বায়োমেট্রিক তথ্য ব্যবহার করে আপনার ব্যাংক হিসেবের সকল তথ্য সংগ্রহ করে নিবে। এর পর দোকানদার ওকে বোতামে চাপ দিলেই আপনার পণ্যের মূল্য সাথে সাথে আপনার একাউন্ট থেকে কেটে নিবে। এক্ষেত্রে আপনাকে কোন সিগনেচার করতে হবেনা। সম্পূর্ণ প্রক্রিয়াটি সমাপ্ত হবে মাত্র ৩০ সেকেন্ড সময়ের মাঝেই।

বর্তমানে ইউনিকুল ছাড়াও বিভিন্ন ক্ষেত্রে ফেস রিকগনিশন প্রযুক্তি ব্যবহার করা হচ্ছে।
সম্প্রতি লন্ডনে অনুষ্ঠিত এটিএম সম্মেলনে মার্কিন নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান ডাইবোল্ড ‘মিলেনিয়াম এটিএম’ নামে নতুন একটি এটিএম পদ্ধতি দেখিয়েছে যাতে গ্রাহক শনাক্তের জন্য ফেস রিকগনিশন পদ্ধতি ব্যবহৃত হয়েছে।

সূত্রঃ ইউনিকুল

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...