The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

ভিসা ছাড়া বাংলাদেশীরা যেসব দেশে যেতে পারবেন

বাংলাদেশীরা ভিসা ছাড়া যেতে পারেন বিশ্বের ৪১টি দেশে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ বাংলাদেশের পাসপোর্টধারীরা বিনা ভিসায় বেশ কয়েকটি দেশে প্রবেশ করতে পারেন বা তাদের প্রবেশের অনুমতি রয়েছে। আপনার বিষয়টি জানা না থাকলে আজ জেনে নিন।

ভিসামুক্ত প্রবেশাধিকার সুবিধার তালিকার প্রথমেই রয়েছে জাপানি পাসপোর্ট। ১৯০টি দেশে বিনা ভিসায় প্রবেশ করতে পারেন জাপানের নাগরিক (পাসপোর্টধারীরা)। বাংলাদেশীরা ভিসা ছাড়া যেতে পারেন বিশ্বের ৪১টি দেশে। যদিও ইতিপূর্বে ভিসা ছাড়া ৩৮টি দেশে যাওয়া যেতো। তবে ২০২০ সালে কোন পরিবর্তন না আসায় ৪১ দেশে যেতে পারেন বাংলাদেশীরা। ২০১৯ সালেও ৪১ দেশে যাওয়ার ব্যবস্থা ছিল। যদিও করোনার কারণে বর্তমানে বেশ কিছু দেশে বিধি নিষেধ রয়েছে।

বিশ্বের ১০৪টি দেশের ওপর প্রতি বছরই জরিপ চালিয়ে একটি মূল্যায়ন সূচক তৈরি করে থাকে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংস্থা ‘দ্যা হ্যানলি অ্যান্ড পার্টনার্স’। এই বছরও তার কোনো ব্যতিক্রম ঘটেনি। আন্তর্জাতিক বিমান পরিবহন সংস্থা’র (আইএটিএ) ভ্রমণ তথ্য ভাণ্ডারের সহযোগিতা নিয়ে প্রতিবছরের মতো এই সূচক তৈরি করেছেন তারা। এতে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান সম্পর্কে এই তথ্য তুলে ধরা হয়।

দ্য হ্যানলি অ্যান্ড পার্টনার্স’র মতে বাংলাদেশী পাসপোর্ট থাকলে বিশ্বের যেসব দেশে ভিসা ছাড়া প্রবেশ করা যাবে সেগুলো হলো:

এশিয়া

ভুটান, ইন্দোনেশিয়া, নেপাল, মালদ্বীপ, শ্রীলঙ্কা এবং পূর্ব তিমুর।

আফ্রিকা

কেপ ভার্দ, বেনিন, কমোরো দ্বীপপুঞ্জ, জিবুতি, গাম্বিয়া, গিনি বিসাউ, লেসোথো, মাদাগাস্কার, কেনিয়া, মৌরিতানিয়া, মোজাম্বিক, রুয়ান্ডা, সিসিলি, সোমালিয়া, টোগো এবং উগান্ডা।

আমেরিকা

শুধু মাত্র বলিভিয়া

ওশেনিয়া

কুক আইল্যান্ডস, ফিজি, মাইক্রোনেশিয়া, সামাউ, নিউই, ত্রিভালু এবং ভানুয়াতু।

ক্যারিবীয় অঞ্চলসমূহ

বাহামা, বার্বাডোজ, ব্রিটিশ ভার্জিনিয়া আইল্যান্ডস, গ্রেনাডা, ডোমিনিকা, ত্রিনিদাদ এবং টোব্যাগো, হাইতি, মন্টসেরাত, জামাইকা, সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস এবং সেন্ট ভিনসেন্ট।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...