The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

বিলুপ্ত হয়ে যাওয়া কয়েকটি অদ্ভুতুড়ে পেশা সম্পর্কে জানুন

এরকমই কিছু অদ্ভুতুড়ে পেশার কথা আজ তুলে ধরা হবে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ এই পৃথিবীতে নানাভাবে মানুষ তার জীবিকা নির্বাহ করে। বেঁচে থাকার জন্য বা শুধুমাত্র ভালো লাগা থেকে মানুষ নানা রকম পেশা বেছে নেন। আজ রয়েছে বিলুপ্ত হয়ে যাওয়া কয়েকটি অদ্ভুতুড়ে পেশা সম্পর্কে।

বিলুপ্ত হয়ে যাওয়া কয়েকটি অদ্ভুতুড়ে পেশা সম্পর্কে জানুন 1

এরকমই কিছু অদ্ভুতুড়ে পেশার কথা আজ তুলে ধরা হবে, যেগুলো বিলুপ্ত হয়ে গেছে পৃথিবীর বুক থেকে। পেশাগুলো এমনই অদ্ভুত যে বেশিরভাগের কথাই আপনার আগে শোনাই হয়নি। এখন জানার পর বিস্মিত হবেন এই ভেবে যে, এমন পেশাও কী তাহলে ছিল এই পৃথিবীতে!

# শত্রুসেনার বিমানের অবস্থান নির্ণয়ের জন্য বর্তমানে রাডারসহ আরও কতো আধুনিকপ্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়! তবে যখন রাডারই ছিল না, তবে যুদ্ধ ও বিমান দুটিই ছিল, তখন আসলে কী করা হতো? তখন সেনারা এই ছবিতে দেখানো বিশেষ শব্দ নির্ভর যন্ত্র এবং আয়না ব্যবহার করে দূর থেকে আসা শত্রুপক্ষের বিমানের ইঞ্জিনের আওয়াজ শুনেই সেটার অবস্থান নির্ণয় করতেন!

# সেই সময় অর্থাৎ আদিকালে ইউরোপে যখন ইঁদুরের উপদ্রব খুবই বেড়ে যেতো, তখন rat catcher বা ইঁদুর ধরার জন্য লোক নিয়োগ করা হতো। এই লোকদের কাজই ছিল ইঁদুর খুঁজে বের করে সেগুলোকে ধরে ফেলা। যদিও এই লোকগুলোর ইঁদুরের কামড় ও তা থেকে রোগ সংক্রমণের ঝুঁকিও ছিল, তবুও তারা বেশ দক্ষতার সঙ্গেই তাদের এই দায়িত্ব পালন করতেন।

বিলুপ্ত হয়ে যাওয়া কয়েকটি অদ্ভুতুড়ে পেশা সম্পর্কে জানুন 2

# বিজ্ঞানী টমাস আলভা এডিসনের বৈদ্যুতিক বাতি উদ্ভাবনের আগ মুহূর্ত পর্যন্ত রাস্তার ল্যাম্প পোস্টগুলোতে ব্যবহার করা হতো তেলের বাতি। এই বাতিগুলো ঠিক সময় জ্বালানো-নেভানো বা তেল দিয়ে পূর্ণ করার জন্য নিয়োগ দেওয়া হয়েছিল এই ছবির মতোই বেশ কিছু কর্মীকে।

# প্রতিদিনই কী আপনার ঘুম থেকে জাগতে দেরি হয়? কেও আপনাকে জাগিয়ে দিলে ভালো হতো? কোনো এক সময় শহরের মানুষকে সঠিক সময় ঘুম থেকে জাগিয়ে দেওয়ার জন্য নিয়োজিত থাকতেন বেশ কিছু ব্যক্তি। তারা মানুষের বাড়ির সামনে গিয়ে তাদের বাড়ির জানালা কিংবা দরজায় লাঠি দিয়ে টোকা দিয়ে তাদেরকে জাগিয়ে তুলতেন!

বিলুপ্ত হয়ে যাওয়া কয়েকটি অদ্ভুতুড়ে পেশা সম্পর্কে জানুন 3

# আগে যখন ফ্রিজ আবিষ্কার হয়নি, তখন কী মানুষ বরফ ব্যবহর করতেন না? করলে সেটি কীভাবে করতেন? সেই সময় একদল লোক ছিলেন যাদের কাজই ছিলো বরফে জমে যাওয়া হ্রদ কেটে বরফ সংগ্রহ করা। এই পেশাটি ছিলো খুবই বিপজ্জনক পেশা। এই বরফই পরবর্তীতে মানুষের ঘরে বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করা হতো!

তথ্যসূত্র : আরটিভি

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...