The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

ঝিনাইদহের গলাকাটা মসজিদ

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ শুভ সকাল। শুক্রবার, ১২ মার্চ ২০২১ খৃস্টাব্দ, ২৭ ফাল্গুন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৭ রজব ১৪৪২ হিজরি। দি ঢাকা টাইমস্ -এর পক্ষ থেকে সকলকে শুভ সকাল। আজ যাদের জন্মদিন তাদের সকলকে জানাই জন্মদিনের শুভেচ্ছা- শুভ জন্মদিন।

ঝিনাইদহের গলাকাটা মসজিদ 1

ঝিনাইদহ জেলা সদর হতে ৩০ কিলোমিটার দূরে বারোবাজার ইউনিয়নে এই গলাকাটা মসজিদটি অবস্থিত। এটি একটি ঐতিহাসিক মসজিদ।

কালিগঞ্জে মাটি খনন করে প্রাপ্ত ১৯টি সুলতানি আমলের মসজিদের মধ্যে এই মসজিদটি হলো অন্যতম। নব্বইয়ের দশকে বাংলাদেশ প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর মাটির ঢিবি খনন করে গলাকাটা মসজিদের ধ্বংসাবশেষ উদ্ধার এবং সংস্কার করেন।

ধারণা করা হয় যে, ১৬শ শতকে খান জাহান আলীর আমলে এই মসজিদটি নির্মাণ করা হয়। বর্তমানে এই মসজিদটি গলাকাটা দীঘি ঢিবি মসজিদ হিসেবেও অধিক সুপরিচিত। ৬ গম্বুজ বিশিষ্ট গলাকাটা মসজিদের দেওয়ালগুলো ২৫ ফুট উঁচু ও ৫ ফুট চওড়া। ৪টি ষষ্ঠকোণাকৃতির পিলারের উপর স্থাপিত বর্গাকৃতি এই মসজিদে সূচাল খিলান বিশিষ্ট ৩টি পোড়ামাটির প্রবেশদ্বার বিদ্যমান। মসজিদের ভিতরে রয়েছে টেরাকোটার অলংকৃত ৩টি অর্ধবৃত্তাকার সুসজ্জিত মেহরাব এবং ৮ ফুট উচ্চতার দুটি কষ্টিপাথরের মিনার।

মসজিদের পাশেই প্রায় ১২ বিঘা জায়গা জুড়ে গলাকাটা দীঘি অবস্থিত। কথিত রয়েছে যে, বারোবাজারের একজন অত্যাচারী রাজা প্রজাদের বলি দিয়ে এই দীঘিতে ফেলে দিতেন। সে কারণে দিঘীটি গলাকাটা দীঘি হিসাবে পরবর্তীকালে পরিচিতি পায়। মসজিদ খননকালে প্রাপ্ত পঞ্চাদশ শতাব্দীর কিছু নিদর্শন, হাতে লেখা কোরআন শরীফ এবং একটি তলোয়ার মসজিদের ভিতরে সংরক্ষিত রয়েছে।

বাংলাদেশ প্রত্নতাত্ত্বিক অধিদপ্তরের অধীনে থাকা সুলতানি আমলের বিশাল এই মসজিদটি দেখতে এবং দীঘির মনোরম পরিবেশে সময় কাটাতে দূর দূরান্ত হতে প্রতিদিন বহু মানুষ এখানে বেড়াতে আসেন। গলাকাটা মসজিদের কাছেই রয়েছে জোড়বাংলা জামে মসজিদ, গোড়ার মসজিদ ও পীর পুকুর জামে মসজিদসহ আরও বেশকিছু ঐতিহাসিক মসজিদসমূহ।

তথ্যসূত্র: https://vromonguide.com

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...