The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

৫০ শিল্পীর কণ্ঠে ‘আমার সোনার বাংলা’ গান [ভিডিও]

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ৫০ শিল্পীর কণ্ঠে নতুনভাবে সংগীতায়োজনে তৈরি হয়েছে বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত ‘আমার সোনার বাংলা’।

৫০ শিল্পীর কণ্ঠে ‘আমার সোনার বাংলা’ গান [ভিডিও] 1

ঢাকার জাতীয় সংসদ ভবন, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান এবং সাভারের স্মৃতিসৌধ এলাকায় গানটির দৃশ্য ধারণ শেষে ২৬ মার্চের প্রথম প্রহরে গানটি প্রকাশিত হয়েছে।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদ্যাপন উপলক্ষে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে এই গানটি করা হয়েছে।

জাতীয় সংগীত নতুনভাবে সংগীতায়োজন করেছেন কৌশিক হোসেন তাপস। এই আয়োজনে মুক্তিযোদ্ধা ও স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পীদের পাশাপাশি নতুন প্রজন্মের শিল্পীরাও অংশ নিয়েছেন। এতে কণ্ঠ দিয়েছেন ২৫ জন পুরুষ এবং ২৫ জন নারী কণ্ঠশিল্পী।

শিল্পী তালিকায় রয়েছেন- রফিকুল আলম, খুরশীদ আলম, ফকির আলমগীর, মাহমুদ সেলিম, হামিন আহমেদ, মাকসুদ, হাসান, এস আই টুটুল, বালাম, সুজিত মুস্তাফা, রবি চৌধুরী, অর্ণব, মিজান, মিলন মাহমুদ, আরেফিন রুমি, রাফা, অদিত, পারভেজ, অটামনাল মুন, শামিম, প্রিয়, হাসিব, এবিডি, পুলক এবং কৌশিক হোসেন তাপস।

অপরদিকে নারী সংগীতশিল্পীর মধ্যে রয়েছেন শাহিন সামাদ, ফাতেমা তুজ জোহরা, আবিদা সুলতানা, রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা, ফাহমিদা নবী, শামা রহমান, দিলশাদ নাহার কাকলী, আঁখি আলমগীর, মেহরিন, রুমানা ইসলাম, অণিমা রায়, এলিটা, জুলি, তাশফি, লুইপা, দোলা, আনিকা, রেশমি, সিঁথি সাহা, সুনিধি নায়েক, টিনা রাসেল, আর্নিক, ঐশী, পুতুল এবং আয়শা মৌসুমি।

নতুন প্রজন্মের মধ্যে নতুন আয়োজনের জাতীয় সংগীতকে ছড়িয়ে দেওয়ার প্রচেষ্টা হিসেবে এটি করা হয়েছে।

মহান স্বাধীনতা দিবসের প্রথম প্রহর হতে গানবাংলা চ্যানেলসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার হচ্ছে নতুন আয়োজনের এই জাতীয় সংগীতটি।

দেখুন গানটি

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...