The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

জনপ্রিয় অভিনেত্রী মনিরা মিঠু বড় ছেলেকে বিয়ে দিলেন

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ একজন মা হিসেবে পর্দায় অনেক ছেলেকে বিয়ে দিয়েছেন আবার বিয়েতে বাধ সেধেছেন অভিনেত্রী মনিরা মিঠু। তবে এবার তিনি নিজের ছেলেকে বিয়ে দিলেন।

জনপ্রিয় অভিনেত্রী মনিরা মিঠু বড় ছেলেকে বিয়ে দিলেন 1

এবার সত্যিই তার ঘরে এলো পুত্রবধূ। গত ১৬ মে (রবিবার) মনিরা মিঠুর ছেলের বিয়ে হয়েছে। করোনার কারণে অনেকটা নীরবেই বিয়ে দিয়েছেন তিনি। বরযাত্রী ছিলেন মাত্র কয়েকজন। তাদের সবাই কোভিড-১৯ পরীক্ষা করিয়ে এই অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন। এই বিয়ের পর শুভেচ্ছায় ভাসসে তার পরিবার।

মনিরা মিঠু সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ‘বাসায় একটা মেয়ে এসে আমার সংসারটা একেবারে পূর্ণ করে দিলো। মাথায় তেল দিয়ে দেওয়ার একজন মানুষ অন্তত পাওয়া গেলো। বিয়ের পরেরদিন সকালে নানা রকম খাবার টেবিলে সাজিয়ে মেয়ে আমাকে ঘুম থেকে তুলে খেতে ডেকেছে। খাবারের বহর দেখে যখন তাকে বললাম, মা, আমি কিন্তু প্রতিদিন শুটিংয়ের আগে এক টুকরা কেক ও এক কাপ চা খেয়ে বের হই, এসবেতেই আমার অভ্যাস হয়ে গেছে। শুনে মেয়েতো অবাক! আমার মনে হয়েছে যে, আমার কষ্ট বোঝার একজন মানুষ পাওয়া গেলো। নাটকে যখন ছেলে বিয়ে দিয়ে বউ নিয়ে আসতাম, তখন মনে হতো যে, বাসায় ফিরে যদি এই রকম একটা বউ আমার দরজা খুলে দিতো! বলতো, আম্মা হাত-মুখ ধুয়ে আসেন, আমি আপনাকে খাবার দিচ্ছি। এখন হয়তো গভীর রাতে শুটিং শেষে বলতে পারবো মা রে, আমার জন্য একটু গরম পানি করে রেখো, এসে খাবো। আমার দুই ছেলেই ব্যস্ত থাকে। এখন তো আমি কথা বলার জন্য একটা মেয়ে পেলাম।’

মনিরা মিঠু বলেন, ‘সহশিল্পীরা যেনো আমার আত্মার আত্মীয়। ছেলের বিয়েতে তাদের দাওয়াত করতে না পেরে আমার নিজেরই খারাপ লেগেছে। যদিও করোনা পরিস্থিতির কারণেই সেটি সম্ভব হয়নি। ইচ্ছা রয়েছে, রিসেপশনে সবাইকে দাওয়াত দেবো। প্লিজ এই মুহূর্তে কেও ভুল বুঝবেন না। ছেলে এবং বউকে আপনারা দোয়া করবেন সবাই।’

এই ঈদুল ফিতরে ২০টির বেশি নাটকে অভিনয় করেছেন মনিরা মিঠু। ‘যদি আমি না থাকি’, ‘পেপার গার্ল’, ‘তেজপাতা’, ‘দৌড়ের উপর ওষুধ নেই’, অ্যাওয়ার্ড’সহ কয়েকটি নাটক বেশ সাড়া ফেলেছে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...