The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

টিকা নেওয়া এড়াতে নদীতে ঝাঁপ!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ভারতে করোনার সংক্রমণ মহামারি আকার ধারণ করেছে। অতিমাত্রায় সংক্রমণের রাশ টানতে দেশটিতে জোরেসোরে চলছে টিকাকরণ প্রক্রিয়া। কিন্তু কিছু মানুষ এখনও এই টিকার বিরুদ্ধে। তাইতো টিকা নেওয়া এড়াতে নদীতে ঝাঁপ দিলেন একটি গ্রামের মানুষরা!

টিকা নেওয়া এড়াতে নদীতে ঝাঁপ! 1

করোনার সঙ্গে যুদ্ধ করার জন্য টিকাই হলো এখন একমাত্র অস্ত্র। ইতিমধ্যেই ভারতের অনেক মানুষ পেয়ে গেছে টিকার দুটি ডোজ। ১৬ কোটিরও বেশি মানুষ টিকা নিয়েছেন। আবার অনেকেই প্রথম ডোজের পর দ্বিতীয়টির জন্য তাকিয়ে সরকারের দিকে। অধিক জনসংখ্যার এই দেশে সকলকে টিকাকরণের আওতায় আনতে কার্যত হিমশিম খাচ্ছে দেশটির কেন্দ্রীয় সরকার। তবে যেখানে টিকার সংকটে একদল মানুষের মধ্যে হারাহার পড়ে গেছে, সেখানে আরেক দল বেকুবের মতো নারাজ টিকা নিতে।

সম্প্রতি রাজ্যটির বড়বঙ্কি জেলার সিসাউন্ডা নামে গ্রামের লোকজন স্বাস্থ্যকর্মীদের কাছ থেকে পালাতে নদীতে ঝাঁপ দিয়েছেন! এক বা দুই জন নয়, একেবারে প্রায় ২০০ জন গ্রামবাসী ঝাঁপিয়ে পড়েছেন গ্রামেরই একটি নদীতে।

গত শনিবার সিসাউন্ডা গ্রামে টিকা দেওয়ার জন্য পৌঁছায় একটি স্বাস্থ্যকর্মীর দল। তাদের দেখে গ্রামবাসীরা ছুট দেয় একেবারে নদীর দিকে। জানা যায়, টিকা নিতে নারাজ বলেই এমন ঘটনা ঘটিয়েছে গ্রামবাসীরা। অনেক গ্রামবাসী দাবি করেছেন যে, টিকাগুলো “বিষাক্ত” হওয়ার কারণে তাদের এই সিদ্ধান্ত।

ভারতের রামনগর উপ-বিভাগীয় ম্যাজিস্ট্রেট রাজীব কুমার শুক্লা এই বিষয়ে জানান, তিনি গ্রামবাসীদের টিকার বিষয়ে অবগতও করছেন। গ্রামের ১ হাজার ৭০০ জনের মধ্যে মাত্র ১৪ জন করোনার টিকা গ্রহণ করেছেন।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...