The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

গবেষণা রিপোর্ট: ছেলেরা সিঙ্গেল লাইফ থাকতে কেনো বেশি পছন্দ করেন?

এই বিষয়ে মার্কিন অধ্যাপক মনোবিজ্ঞানী লিসা ফায়ারস্টোন জানিয়েছেন

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ অনেক ছেলেই বিয়ে করতে চান না বা তারা কোনো সম্পর্কেও জড়াতে চান না। তারা চান সিঙ্গেল লাইফ জীবন অতিবাহিত করতে। কিন্তু কেনো তাদের এই চাওয়া?

গবেষণা রিপোর্ট: ছেলেরা সিঙ্গেল লাইফ থাকতে কেনো বেশি পছন্দ করেন? 1

যারা বিবাহিত জীবন কাটাচ্ছেন তারা মনে করেন যে, একাই তো ভালো ছিলাম। অপরদিকে যারা অবিবাহিত তাদের অনেকেই আবার একা জীবন ভালো লাগছেনা, সে জন্য তারা খুঁজে চলেছেন মনের মতো একজন সঙ্গী।

আবার বিবাহিত জীবনে বা প্রেমের সম্পর্কে থাকার ক্ষেত্রে অনেকেরই একটা অনাগ্রহ দেখা যায়। অনেকেই ভেবে থাকেন সম্পর্কে জড়ালে হয়তো তার জীবনের স্বাধীনতা একেবারে হারিয়ে যাবে। তার জীবন হয়তো একটা জায়গায় আটকে যেতে পারে। এই ধরনের ভাবনা মনে আসার কারণেই অধিকাংশ ছেলেরা একাকি জীবন কাটাতে বেশি পছন্দ করেন। আবার অন্য অনেক কারণও থাকতে পারে, আসলে এক এক জনের জন্য একেক ধরণের।

এই বিষয়ে মার্কিন অধ্যাপক মনোবিজ্ঞানী লিসা ফায়ারস্টোন জানিয়েছেন, সোশ্যাল মিডিয়ায় সমীক্ষা চালিয়ে ২০ হাজারেরও বেশি ‘সিঙ্গেল’পুরুষের মতামত সংগ্রহ করে যে উত্তরগুলো পাওয়া গেছে সেগুলোকে ৪৩ বিভাগে ভাগ করা যায়। এই উত্তরগুলো বিশ্লেষণ করে মনোবিজ্ঞানীরা মোট ৬টি কারণ জানতে পেরেছেন।

ইভলিউশনারি সাইকোলজিকাল সায়েন্স জার্নালে প্রকাশিত হয় ছেলেদের একা থাকতে চাওয়ার পেছনের ওই ৬টি প্রধান কারণ। কারণ গুলো হলো:

১। ছেলেদের সম্পর্কে জড়ানোর ক্ষেত্রে মূলত আত্মবিশ্বাসের অভাবই বড় বাধা হয়ে দাঁড়ায়। তাই তারা একা থাকতেই পছন্দ করেন।

২। অনেকেই বলেছেন, সম্পর্ক এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে তারা খুব বেশি একটা মাথাও ঘামাতে চান না।

৩। অনেকেই তাদের ভেঙে যাওয়া সম্পর্ককে কারণ হিসেবে দেখিয়েছেন ও তারা মহিলাদের আর কখনও বিশ্বাস করতে পারেন না, সেটাও বলেছেন অনেকেই।

৪। আবার অনেকেই বলেছেন, সম্পর্ক গড়তে তাদের কোনো ইচ্ছেই হয় না।

৫। সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ কারণ হলো, অনেক পুরুষ নাকি ‘ফ্লার্ট’ই করতে পারেন না! তারা খুবই ইন্ট্রোভার্ট এবং লাজুক প্রকৃতির। তাই মেয়েদের সঙ্গে কথা বলার ক্ষেত্রে জড়তাও অনুভব করেন। তাই তারা একা থাকতেই বেশি পছন্দ করেন।

৬। সমীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে ৬৬০ জনেরও বেশি অংশগ্রহণকারীর উত্তর ছিল এমন- তারা দেখতে ভালো নয় বলে তারা একাই থাকতে চান!

তথ্যসূত্র : জি নিউজ

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...